অবশেষে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির সুপারিশ করা হল পুদুচেরিতে। সোমবার আস্থাভোটের আগেই মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামী ইস্তফা দেন। একের পর এক বিধায়ক দল ছাড়ায় তাঁর কাছে স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল তিনি বিধানসভা আস্থাভোটে নিজের সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমান করতে পারবেন না। তাই তিনি মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করেন। পুদুচেরিতে কংগ্রেস সরকারের পতনের পর সরকার গঠনের কোনও দাবি জানায়নি বিরোধী প্রতিপক্ষ বিজেপি ও তার সহযোগীরা। সূত্রের খবর বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা পুদুচেরিতে রাষ্ট্রপতি শাসনের সুপারিশ করেছিল। সেখানের লেফটেন্যান্ট গভর্নরও একই পরামর্শ দিয়েছিলেন। 

২৬ আসনের পুদুচেরি বিধানসভায় কংগ্রেসজোটের পক্ষ পুদুচেরিতে সবমিলিয়ে ১৪ জন বিধায়ক ছিল। তবে গত কয়েকদিনেই ৬ জন বিধায়ক পদত্যাগ করেন। তারপরই সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারায় কংগ্রেস জোট। ইতিমধ্যেই কংগ্রেসের দুই বিধায়ক বিজেপিতে যোগদান করেছেন। বাকিরাও সেই পথেই অনুরসরণ করবেন বলে রাজনৈতিক মহলের ধারনা। আগামি এপ্রিলেই কেরল বাংলা অসম ও তামিলনাড়ুতে বিধানসভা নির্বাচন। সেইসঙ্গে পুদুচেরিতেই বিধানসভা নির্বাচন হবে বলেও মনে করা হচ্ছে।