আবারও জঙ্গি হামলায় উত্তপ্ত শ্রীনগর। দিনে দুপুরেই প্রকাশ্যে হামলা চালাল সন্ত্রাসবাদীরা। তাদের এলোপাথাড়ি গুলিতে জখম হয়েছে দুই পুলিশ কর্মী।জঙ্গি হামলা ছবি ধরা পড়েছে সিসিটিভিতে। সেই ছবিই ভাইরাল হয় নিমেশের মধ্যে।  ছবিতে দেখা যাচ্ছে একজন সন্ত্রাসবাদী চাদরের মধ্যে লুকিয়ে রাইফেল নিয়ে আসে একটি দোকানের সামনে। সেখানেই সে গুলি ছুঁড়তে থাকে। গোটা এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। সন্ত্রাসবাদীর নজরে ছিল দুই পুলিশ কর্মী। তাদেরকে নিশানা বানিয়ে সে যে রাস্তা দিয়ে এসেছিল সেই রাস্তা দিয়ে চলে যায়। 


কাশ্মীর জোনের অফিসিয়াল অঅযাকাউন্টে টুইটারে হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছেষ শ্রীনগরের বরজুলা এলাকায় সন্ত্রাসবাদীরা একটি পুলিশ দলের ওপর হামলা চালায়। ঘটনা আহত দুই পুলিশ কর্মীরে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে হাসপাতালে। গোটা এলাকা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। হামলার পরই শ্রীনদরের বাঘাট এলাকায় সুরক্ষা বাহিনী তল্লাশি শুরু করেছে। এরআগেই জম্মু ও কাশ্মীরের বাদগাম জেলায় সুরক্ষা বাহিনী ও সন্ত্রাসবাদী দলের মধ্যে সংঘর্ষে এক পুলিশ কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে এক নিরাপত্তারক্ষা। যদিও দুটি ঘটনায় কোনও সন্ত্রাসবাদী ঘায়েল হয়নি বলেই পুলিশ সূত্রের খরব। 
 

দুদিনের সফরে জম্মু ও কাশ্মীর সফর করেছিলেন বিদেশি জনপ্রতিনিধি ও কূটনৈতিকদের একটি দল। তাঁরা কাশ্মীরের প্রত্যন্ত এলাকায় সফর করেছিলেন। কথা বলেছিলেন স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে। তাঁদের সফর ঘিরে চড়া নিরাপত্তা ছিল ভূস্বর্গের বিস্তীর্ণ এলাকায়। এলাকার উন্নয়ন তুলে ধরতেই তাঁদের জম্মু ও কাশ্মীর সফরের ব্যবস্থা করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। একই সঙ্গে সংবিধানের ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার পরের পরিস্থিতিও বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে এই উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছিল।