শেষ রক্ষা হল না। রাজ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন বেলঘড়িয়ার প্রৌঢ়। যার জেরে বাংলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৬। মঙ্গলবারই ওই ব্যক্তির করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। গত কয়েকদিন ধরেই হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি।

শরীর 'পোড়াবে' সূর্যদেব, করোনার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চড়ছে পারদ.

জানা গিয়েছে , ৫৭ বছরের ও‌ই ব্যক্তি রথতলা এলাকায় রোল-চাউমিনের দোকান চালাতেন। এমনকী তাঁর ভিন রাজ্য়ে বা দেশে যাওয়ারও কোনো ইতিহাস নেই।  কীভাবে তিনি আক্রান্ত হলেন, তা এখনও স্পষ্ট নয়। পরিবারে আশঙ্কা কোনও ক্রেতার থেকে তাঁর সংক্রমণ হয়ে থাকতে পারে। সূত্রের খবর,সম্প্রতি  ওই ব্যক্তির এক আত্মীয় মুম্বই থেকে ফিরেছিলেন। পরিবারের বাকিদেরও খোঁজ নিচ্ছে  প্রশাসন।

রাজ্য়ে আরও ১০ জনের শরীরে করোনা, মৃতের সংখ্য়া বেড়ে ৫

বেলঘড়িয়ার জেনিথ হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ওই প্রৌঢ়। কিডনি জনিত একাধিক সমস্যা নিয়ে ভুগছিলেন তিনি। তার জন্য বার বার ডায়ালিসিস করাতে জেনিথে যেতেন। ডায়ালিসিস করাতে গিয়েই অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই ব্যক্তি। 

এদিকে রাজ্য়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। মঙ্গলবার একদিনে আরও ১০ জনের শরীরে পাওয়া গিয়েছে করোনা পজিটিভ। জীবনযুদ্ধে হার মেনেছেন আরও ২ জন। সব মিলিয়ে রাজ্য়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া ২৭ থেকে বেড়ে ৩৭, মৃত তিন থেকে ৬।

রাজ্য়ে একদিনে দেড় লক্ষ লোককে আলাদা থাকার নির্দেশ স্বাস্থ্য় দফতরের

নাইসেড সূত্রে খবর বেশি রাতে মঙ্গলবার বেশকিছু রিপোর্ট  এসে পৌঁছয় স্বাস্থ্য় ভবনে। যা চিন্তা বাড়িয়েছে চিকিৎসকদের। সূত্রের দাবি, হাওড়ার এক বেসরকারি হাসপাতালে এ দিন রাতে মৃত্যু হয়েছে ১ করোনা আক্রান্তের। ওই ব্যক্তির পরিবারের আরও চার জনও এখন হাসপাতালে পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। ওই ব্যক্তির কোনও ভিন  দেশে বা রাজ্য়ের যোগ ছিল  কিনা তা খতিয়ে দেখছে স্বাস্থ্য় ভবন। ইতিমধ্য়েই শুরু হয়েছে জিজ্ঞাসাবাদ।

এদিকে রাজ্য়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। মঙ্গলবার একদিনে আরও ১০ জনের শরীরে পাওয়া গিয়েছে করোনা পজিটিভ। জীবনযুদ্ধে হার মেনেছেন আরও ২ জন। সব মিলিয়ে রাজ্য়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া ২৭ থেকে বেড়ে ৩৭, মৃত তিন থেকে ৬।

নাইসেড সূত্রে খবর বেশি রাতে মঙ্গলবার বেশকিছু রিপোর্ট  এসে পৌঁছয় স্বাস্থ্য় ভবনে। যা চিন্তা বাড়িয়েছে চিকিৎসকদের। সূত্রের দাবি, হাওড়ার এক বেসরকারি হাসপাতালে এ দিন রাতে মৃত্যু হয়েছে ১ করোনা আক্রান্তের। ওই ব্যক্তির পরিবারের আরও চার জনও এখন হাসপাতালে পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। ওই ব্যক্তির কোনও ভিন  দেশে বা রাজ্য়ের যোগ ছিল  কিনা তা খতিয়ে দেখছে স্বাস্থ্য় ভবন। ইতিমধ্য়েই শুরু হয়েছে জিজ্ঞাসাবাদ।