বাড়তি নিরাপত্তা সত্ত্বেও মাধ্যমিকের প্রথমদিনেই  প্রশ্নপত্র ফাঁস। পরীক্ষা শুরু কিছুক্ষণের মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ল প্রথম ভাষা বাংলার প্রশ্নপত্র। কিন্তু ভাইরাল প্রশ্নটিতেই পরীক্ষা হচ্ছে কি না, সে বিষয়টি স্পষ্ট হবে বেলা ৩ নাগাত পরীক্ষা শেষের পর। 

আরও পড়ুন, 'বড় অভিমান নিয়েই চলে গেলেন তাপসদা', মন খুললেন ঋতুপর্ণা
 
 গত বছর ২০১৯-এর মাধ্যমিকের বেশ কয়েকটি বিষয়ে পরীক্ষা চলাকালীনই হোয়াটসঅ্যাপে প্রশ্নপত্র ফাঁসে  অস্বস্থিতে পড়তে হয়েছিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদকে। ফাঁস হওয়া প্রশ্নের বেশ কয়েকটির সঙ্গে আসল প্রশ্নের মিলও খুঁজে পাওয়া যায় পুলিশি নজরদারির অভাভের অভিযোগ ওঠার পাশাপাশি মধ্যশিক্ষা পর্ষদের দিকেও অভিযোগের আঙুল ওঠে। এমনকী রাজ্য সরকারকেও যথেষ্ট অস্বস্থিতে পড়তে হয়। যার দরুণ ২০২০-এর মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ে চলতি বছরে মাধ্যমিক পরীক্ষাকেন্দ্রের জন্য় কড়া পদক্ষেপ নিয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। নকল এড়াতে বা পরীক্ষা সংক্রান্ত অপ্রীতিকর কোন ঘটনা এড়াতেই নেওয়া হয়েছিল এই সিদ্ধান্ত। শুধু মোবাইলই নয়, স্মার্ট ঘড়ি পরে বা নিয়েও পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢোকায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। শিক্ষকদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথাও বলেছিলেন পর্ষদ সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়।  তবে এত নিরাপত্তা-নজরদারী সত্ত্বেও  মাধ্যমিকের প্রথমদিনেই সোশ্য়াল মিডিয়ায় ফাঁস হয়ে গেল প্রশ্নপত্র। 

আরও পড়ুন, 'স্তম্ভিত এবং শোকাহত', শোকবার্তায় তাপসকে তৃণমূল পরিবারের সদস্য বললেন মমতা


অপরদিকে, বিভিন্ন জেলার ৪২ টি ব্লকে বন্ধ রাখা হয়েছে ইন্টারনেট পরিষেবা। কিন্তু এত কিছু সত্ত্বেও শেষ রক্ষা হল না।  এবারও প্রথম ভাষা বাংলার পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে একটি প্রশ্নপত্র। যার দরুণ স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে পর্ষদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে। যদিও এবিষয়ে এখনও অবধি মধ্যশিক্ষা পর্ষদের তরফ কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।