ভুয়ো ভ্য়াকসিন মামলায় সিবিআই তদন্তের দাবি খারিজ করল কলকাতা হাইকোর্ট। সিবিআই তদন্তের দাবি খারিজ হতেই স্বস্তি ফিরল রাজ্যে। শুক্রবার কেবল সিবিআই-র তদন্ত চেয়ে জনস্বার্থ মামলাই নয়, এই সংক্রান্ত ৩ টি জনস্বার্থ মামলার শুনানিতে সিবিআইয়ের আবেদন খারিজ করে মামলার নিষ্পত্তি করলেন বিচারপতিরা।

আরও পড়ুন, দেবাঞ্জন কাণ্ডে আজই বড় পদক্ষেপ নিতে পারে ED, মোড় নেবে কি কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত

 


 
ভুয়ো ভ্য়াকসিন কাণ্ডে জনস্বার্থ মামলার প্রেক্ষিতে ইতিমধ্য়েই হাইকোর্টে হলফনামা দাখিল করেছে রাজ্য সরকার। হলফনামায় উল্লেখ রয়েছে, অভিযুক্ত দেবাঞ্জন দেবের বাড়ি থেকে প্রচুর ভায়েল উদ্ধার করেছেন তদন্তকারীরা। ওই ভায়েলের উপরে কোভিশিল্ডের লেভেল লাগানো ছিল। দেবাঞ্জন নিজেই জানিয়েছে, সেরাম ইনস্টিটিউটকে মেল করেছিল সে। পাশপাশি, যে আইপি অ্যাড্রেস থেকে এই ইমেল করা হয়েছিল, সেই আইপি অ্যাড্রেসটি জানতে গুগুল কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়েছে কলকাতা পুলিশ। অভিযুক্তের বাড়ি থেকে উদ্ধার হওয়া ল্যাপটপ এবং ফোনের আইপি অ্যাড্রেস জানার চেষ্টা চলছে। জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে দুই তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী এং শান্তনু সেনকেও।

 

 

আরও পড়ুন, কড়া নজরে রাজীব-সব্যসাচী, দল বিরোধি বক্তব্যের জেরে 'বহিষ্কার' করবে কি BJP

'এটা বিরল অপরাধ। দেবাঞ্জন কীভাবে এমন ঘটনা ঘটাল, তা আশ্চর্যের', শুক্রবার এমনই পর্যবেক্ষণ কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্য়ায় এবং বিচারপতি অনিরুদ্ধ রায়ের ডিভিশন বেঞ্চের। আপাতত তারা রাজ্যের উপরেই ভরসা রেখেছেন।