প্রয়াত হলেন বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার সুকুমার হাঁসদা। কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরেই ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন বর্ষীয়ান এই তৃণমূল কংগ্রেস নেতা। ২০১৮ সালের মাঝামাঝি থেকে বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছিলেন তিনি।  

আরও পড়ুন, সুব্রতকে সরিয়ে সাধারণ সম্পাদক অমিতাভ, বাংলা বিজেপির সাংগঠনিক পদে বড়সড় রদবদল

২০১১ সাল থেকে ঝাড়গ্রাম বিধানসভার বিধায়ক ছিলেন তিনি

সূত্রের খবর, কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরেই ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন বর্ষীয়ান এই তৃণমূল কংগ্রেস নেতা। ২০১৮ সালের মাঝামাঝি থেকে বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছিলেন তিনি। নিজের বিধানসভা কেন্দ্র ঝাড়গ্রাম এর সামগ্রিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন প্রয়াত  তৃণমূল কংগ্রেস নেতা সুকুমার হাঁসদা। ২০১১ সাল থেকে ঝাড়গ্রাম বিধানসভার বিধায়ক ছিলেন তিনি। 

আরও পড়ুন, পুজোর পরেও করোনায় কাহিল কলকাতা, ব্যর্থতার খেতাব জিতে ফের শীর্ষে মহানগর

 

 

' ডঃ হাঁসদা তাঁর সারা জীবন  আদিবাসীদের উন্নয়নব্রতে উৎসর্গ করেছিলেন', বলেন মমতা

তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার উপাধ্যক্ষ ডঃ সুকুমার হাঁসদার প্রয়াণে আমি গভীর শোক প্রকাশ করছি। তিনি আজ কলকাতায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর।' মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও জানিয়েছেন, ' ডঃ হাঁসদা তাঁর সারা জীবন  আদিবাসীদের উন্নয়নব্রতে উৎসর্গ করেছিলেন।  আদিবাসী আন্দোলনে ও আদিবাসী মানুষের কল্যাণসাধনে তাঁর ভূমিকা ও অবদান ছিল বিরাট।  আদিবাসী সমাজের অভ্যন্তরে থেকে তিনি তাঁদের বিকাশে নিজের জীবন অতিবাহিত করেন।'