তৃণমূলের একুশে জুলাইয়ের সমাবেশকে মেগা ফ্লপ শো বলে কটাক্ষ করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর দাবি, গত ২৬ বছরের মধ্যে এবারই একুশে জুলাইয়ের সমাবেশে সবথেকে কম লোক হয়েছে এবারের সমাবেশে। তৃণমূলের হাড়- পাঁজর বেরিয়ে গিয়েছে বলেও কটাক্ষ করেছেন খড়্গপুরের সাংসদ। টাকা, ডিম ভাতের প্রলোভন দেখিয়েও তৃণমূল লোক আনতে শাসক দল ব্যর্থ হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ। 

আরও পড়ুন- একুশের মঞ্চে কাটমানির ড্যামেজ কন্ট্রোল, পাল্টা ব্ল্যাক মানি আন্দোলনের নির্দেশ মমতার

কটাক্ষের সুরে দিলীপ বলেন, 'কলকাতার রাস্তায় ঘুরছিলাম, মনে হচ্ছিল আর পাঁচটা রবিবারের মতোই ফাঁকা। পঁচিশ হাজার লোকের থাকাখাওয়ার আয়োজন করেছিল যেখানে, সেখানে পাঁচ হাজার লোক হয়নি। শিয়ালদহ স্টেশনে মন্ত্রী নিজে গিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন, কিন্তু ট্রেন থেকে কেউ নামেওনি, ওঠেওনি। অন্যবার যা লোক হয়, ধর্মতলায় এবার তার চারভাগের একভাগ লোক হয়েছে।'

আরও পড়ুন- ২০২১-এ বিজেপি-র মোকাবিলার ফর্মুলা কী, ২৯ জুলাই বড় ঘোষণা মমতার

এ দিনের সভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেন, ট্রেন, বাস আসতে সভায় লোক আনতে বাধা দিয়েছে বিজেপি। দিলীপবাবুর অবশ্য দাবি, তৃণমূলনেত্রীর এই সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন। অন্যান্য দিনের থেকে এ দিন বেশি ট্রেন চালানো হয়েছে বলেও দাবি করেছেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি। বিজেপি ইচ্ছে করলে দু'- এক জায়গায় বাধা দিতে পারত বলেও দাবি করেন দিলীপ। তবে নমুনা দেখতে চাইলে বিজেপি তৃণমূলকে বাধা দিয়ে দেখিয়ে দেবে বলেও হঁশিয়ারি দেন দিলীপ। 

আরও পড়ুন- প্রসেনজিৎ, ঋতুপর্ণাদের ডেকে বিজেপিতে যোগ দিতে বলছে ইডি, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ মমতার

কটাক্ষের সুরে দিলীপ ঘোষ এ দিন আরও বলেন, 'বিজেপি যদি এত নগণ্যই হয়, তাহলে পঞ্চাশ মিনিটের ভাষণের মধ্যে চল্লিশ মিনিটই কেন আমাদেরকে সমর্পণ করলেন?' এ দিনের ভাষণে সেভাবে নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহের নাম উচ্চারণ করেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দিলীপ ঘোষ কটাক্ষ করে বলেন, নির্বাচনের ফল দেখেই ভয় পেয়ে আর প্রধানমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নাম নেননি মুখ্যমন্ত্রী। 

কাটমানির পাল্টা এ দিন ব্ল্যাকমানি নিয়ে আন্দোলনে নামার ডাক দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাল্টা দিলীপ ঘোষ বলেন, 'তৃণমূলনেত্রীকে চ্যালেঞ্জ করছি, কোথায় ব্ল্যাক মানি আছে উনি প্রমাণ করে দেখান। ওনার হাতে তো আইন আছে, পুলিশ আছে। তদন্ত করে দেখুন না, যদিও ওনার তদন্তে কেউ বিশ্বাস করে না। উনি তো 'চৌকিদার চোর হ্যায়', স্লোগান দিয়েছিলেন। মানুষ নির্বাচনে ওনাকে আয়নায় মুখ দেখিয়ে দিয়েছেন।' 

এবারে একুশে জুলাইয়ের সমাবেশে তৃণমূলের মূল স্লোগানই ছিল, ইভিএমের বদলে ব্যালট ফেরাতে  হবে। এই প্রসঙ্গে বিজেপি রাজ্য সভাপতি বলেন, 'ইভিএমেই ভোটে জিতে এসেছেন। যত দিন ভোটে জিতেছেন ততদিন ইভিএম ঠিক ছিল। আমরা তো ব্যালটে পঞায়েত ভোটে জিতেছি, কিন্তু ভোট করতে না দিলে কী করা যাবে? তা সত্ত্বেও আমরা সাত হাজার আসনে জিতেছি।'