সব প্রস্তুতি শেষ,বহু প্রতীক্ষিত ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো আগামী থেকেই বৃহস্পতিবার চালু হচ্ছে।  মেট্রো সূত্রে জানা গিয়েছে, রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল উদ্বোধন করবেন। সেক্টর ফাইভ স্টেশনে হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। প্রথম পর্যায়ে ইস্ট-ওয়েস্ট চলবে সেক্টর ফাইভ স্টেশন থেকে সল্টলেক স্টেডিয়াম স্টেশন পর্যন্ত। ৫.‌৮ কিলোমিটার এই পথে ট্রেন অতিক্রম করবে ৬ টি স্টেশন। উদ্বোধনের দিন এই গোটা পথটাই অতিক্রম করা হবে। তাই শেষ মুহূর্তে সব কিছু খুঁটিয়ে দেখে নিচ্ছেন মেট্রো কর্তারা। 

আরও পড়ুন, চলতি বছরে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমছে মাধ্যমিকে, নকল এড়াতে কড়া মধ্যশিক্ষা পর্ষদ

মেট্রো সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার একটি ট্রেনই চালানো হবে। যাত্রীদের নিয়ে পরের দিন থেকে পুরোদমে ট্রেন চলবে। মঙ্গলবারও এই পথে ট্রেন চালিয়ে দেখে নিয়েছেন মেট্রো কর্তারা।  ঝাড়পোছ করে প্রতিটা স্টেশন ঝকঝকে করে তোলা হচ্ছে। শুক্রবার থেকে বাণিজ্যিকভাবে এই ট্রেন চলবে সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। মেট্রো সূত্রে খবর, প্রাথমিকভাবে ঠিক করা হয়েছে ২০ মিনিট অন্তর ট্রেন চালানো হবে। পরে যাত্রী সংখ্যা বাড়লে ট্রেনের সময়সূচির পরিবর্তন হবে।  

সূত্রে খবর,  মেট্রো রেলের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো অত্যন্ত আধুনিক। ইস্ট-ওয়েস্টের ট্রেন চালানোর জন্য চালকদের বিশেষ ভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এর আগে বারবার পিছিয়ে গিয়েছে এর উদ্বোধন। অবশেষে চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যাতে কোথাও কোনও খামতি না থাকে সেজন্য প্রত্যেকটি বিষয়ই  খুঁটিয়ে দেখে নেওয়া হচ্ছে। উদ্বোধনের জন্য যে ট্রেনটি ব্যবহার করা হবে সেই ট্রেনের সঙ্গে আরও কয়েকটি ট্রেন মজুত রাখা হচ্ছে। 

আরও পড়ুন, সিঁথিকাণ্ডে নতুন মোড়, সিআইডি তদন্তের দাবি জানাল মৃতের পরিবার
 
 উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখার জন্য়  এলইডি পর্দারও ব্যবস্থা করা হচ্ছে। ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের জায়গা ও স্টেশনকে নজর রাখা হবে। এর জন্য খোলা হচ্ছে বিশেষ কন্ট্রোল রুম। যেখানে থাকবেন আরপিএফের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। উদ্বোধনের দিন স্টেশনে বম্ব ডিসপোজাল কর্মীদের সঙ্গে রাখা হবে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কুকুরদের। জানা গিয়েছে, অনুষ্ঠানের জায়গাটির নিরাপত্তার দায়িত্ব থাকবে আরপিএফের ওপর। প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে মঙ্গলবারও সেক্টর ফাইভ স্টেশনে যান আরপিএফের আধিকারিকরা।