Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Fire: চেতলা ঝুপড়িতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, আগুনে ঝলসে গুরুতর জখম ২ শিশু-সহ ৬

চেতলা হাট রোডের বস্তিতে ভয়াবহ  আগুনে ঝলসে গিয়েছে ২ শিশু-সহ ৬ জন।  আহতদের উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এসএসকেএম হাসপাতালে। 

Fire breaks out in Chetlas Slum area RTB
Author
Kolkata, First Published Oct 22, 2021, 4:06 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

চেতলা হাট রোডের বস্তিতে  (Chetla Slum area) ভয়াবহ আগুন (Massive Fire)। দাউদাউ আগুনে ঝলসে গিয়েছে ২ শিশু-সহ ৬ জন। ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে গিয়েছে দমকলের ৪টি ইঞ্জিন (Fire Engine)।  আহতদের উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এসএসকেএম হাসপাতালে (SSKM Hospital)। 

আরও পড়ুন, উত্তরাখণ্ডে ট্রেকিংয়ে গিয়ে বাংলার ৫ জনের মৃত্যু, প্রাণ হারালেন ঠাকুরপুকুরের বাসিন্দাও

শুক্রবার আচমকাই দাউদাউ করে আগুন লাগে চেতলা হাট রোডের ঝুপড়িতে। খবর পেতেই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় দমকলের ৪টি ইঞ্জিন। ঘিঞ্জি বসতি হওয়ায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে খানিকটা সময় লাগে দমকলের। তবুও যুদ্ধকালীন তৎপরতায় আগুন নেভাচ্ছেন দমকল কর্মীরা। ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন ৬ জন। এদের মধ্যে দুই শিশু রয়েছে বলে জানা গেছে। আহতদের উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় এসএসকেএম হাসপাতালে। সিলিন্ডার ফেটে আগুন লেগেছে বলে প্রাথমিক অনুমান দমকল আধিকারিকদের। আগুন যাতে ভয়াবহ রুপ নিতে না পারে সেজন্য ঝুপড়ি থেকে সিলিন্ডার বের করে নেওয়া হয়েছে।

Fire breaks out in Chetlas Slum area RTB

আরও পড়ুন, Bangladesh Violence: পুলিশের জালে কুমিল্লার সাম্প্রদায়িক হিংসার মূলচক্রী ইকবাল

অপরদিকে, চেতলার ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের খবর শুনেই ঘটনাস্থলে যান রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। মূলত তাঁর তৎপরতাতেই আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে দাবি করেন এলাকাবাসী। কলকাতায় এর আগে অসংখ্যবার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তাই এনিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে দিয়েছে। সব সুরক্ষা বিধি আদৌ মানা হচ্ছে কি না, রাজ্য সরকারের তরফে এই ধরনের রেস্তরাঁ সহ বহুতলের অগ্নি নির্বাপণ ব্যবস্থা খতিয়ে দেখা হচ্ছে কি না, এ নিয়েও প্রশ্নও উঠছে। সবথেকে বড় বিষয় হল এলাকাগুলি ঘিঞ্জি হওয়ায় আগুন নেভাতে গিয়ে আরও বেশি সমস্যার মুখে পড়তে হয় দমকলের। উল্লেখ্য, এই অসুবিধা কলুটোলা স্ট্রীটেও হয়েছিল। সম্প্রতি কলুটোলা স্ট্রিট বাগরি মার্কেট কাছে একটি বহুতলে ভয়াবহ আগুন  লাগে।  ঘটনাস্থলে দমকলের যায় ৮টি ইঞ্জিন। এদিকে ঘিঞ্জি এলাকা হওয়ায় আগুন নেভাতে গিয়ে রীতিমতো সমস্যায় পড়তে হয় দলকল কর্মীদের। কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায় গোটা এলাকা। সেই  ঘিঞ্জি এলাকার লিস্টিতে এবারের জ্বলন্ত প্রমাণ চেতলার ঝুপড়ি এলাকাও।

আরও দেখুন, বিরিয়ানি থেকে তন্দুরি, রইল কলকাতার সেরা খাবারের ঠিকানার হদিশ  

আরও দেখুন, কলকাতার কাছেই সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার জায়গা, থাকল ছবি সহ ঠিকানা  

আরও দেখুন, মাছ ধরতে ভালবাসেন, বেরিয়ে পড়ুন কলকাতার কাছেই এই ঠিকানায়  

আরও পড়ুন, ভাইরাসের ভয় নেই তেমন এখানে, ঘুরে আসুন ভুটানে  

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios