মঙ্গলবার হাসপাতাল থেকে ছুটি পেলেন রাজ্য়ের  প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। এই মুহূর্তে তাঁকে বাড়িতেই পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। তাঁর শারীরিক অবস্থার দ্রুত উন্নতিতে এমনটাই সিদ্ধান্ত নিয়েছে আলিপুরের হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। 

আরও পড়ুন, একুশে জুটবে কি ১০০ আসন তৃণমূলের, ভবিষ্যতবাণী মুকুল রায়ের

 

 

 

বাড়িতে ফিরে খুব খুশি বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য

 

 মঙ্গলবার সকাল ১১টায় হাসপাতাল থেকে ছুটি পেলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। তাঁকে বাড়িতে নিয়ে যান স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্য। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, বুদ্ধদেব এখন অনেকটাই সুস্থ। আপাতত তাঁকে হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা করার প্রয়োজন নেই বলেই দাবি কর্তৃপক্ষের। তাঁকে এখন রাখা হবে হোম কেয়ারে। বাড়িতে ফিরে খুব খুশি প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। মঙ্গলবার সকালেও একাধিক শারীরিক পরীক্ষা রয়েছে। তা চেক করার পরেই বুদ্ধদেবকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়। বাড়ি থাকলেও চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী চলতে হবে। প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা স্বাভাবিকভাবেই চলতে থাকবে। 

আরও পড়ুন, 'এতদিন কোথায় ছিলেন', জিতেন্দ্রের প্রশংসায় দিলীপ-বাবুল, জল কোন দিকে

 

তাঁর বাড়ি ফেরার খবরে খুশির হাওয়া বাংলা জুড়ে

উল্লেখ্য, ৯ ডিসেম্বর প্রবল শ্বাস কষ্ট নিয়ে দক্ষিণ কলকাতার হাসপাতালে ভর্তি হন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। । ৪৮ ঘন্টা ভেন্টিলেশনে রাখার পর ধীরে ধীরে তার মাত্রা কমিয়ে আনা হয়। রক্ত চাপ-পালস-অক্সিজেন স্যাচুরেশনের মাত্রা সবই এখন স্বাভাবিক। হৃদযন্ত্র সহ অন্যান্য় অঙ্গও এখনও ভাল আছে। হাসপাতাল সূত্রে খবর, শনিবার সুপ এবং লিকার খেয়েছিলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। রবিবার আরও উন্নতি দেখে তাঁকে  নিজে মুখে তরল খিচুড়ি, পেঁপে, আঙুর খেতে দিলেন। খুব অল্প পরিমাণে হলেও নিজেই খেয়েছেন বুদ্ধদেব। সোমবার দিনে- রাতেও তিনি খিচুড়ি ও স্যুপ খেয়েছেন। হালকা তরল জাতীয় খাবারই এখন বাড়িতেও দেওয়া হবে তাঁকে। তাঁর বাড়ি ফেরার খবরে খুশির হাওয়া বাংলা জুড়ে।