ফের বদল হল উচ্চমাধ্যমিকের পরীক্ষার সূচির। এর আগে গত ১৯ মে বাড়ি থেকেই করোনাভাইরাস মহামারির কারণে থমকে যাওয়া উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার নতুন সূচি ঘোষণা করেছিলেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। বলা হয়েছিল ২৯ জুন, ২ জুলাই এবং ৬ জুলাই - এই তিনদিনে বাকি থাকা পরীক্ষাগুলি গ্রহন করা হবে। কিন্তু, তারপর কনটেইনমেন্ট জোনে লকডাউনের মেয়াদ বেড়েছে ৩০ জুন অবধি। তার উপর ঘূর্ণিঝড় আমফান অনেক জায়গাতেই সবকিছু ওলটপালট করে দিয়েছে। এইসব কারণেই ২৯ জুন তারিখটি পরীক্ষাসূচি থেকে বাদ দেওয়া হল। এর পরিবর্তে নতুন সূচি অনুযায়ী বাকি থাকা পরীক্ষাগুলি হবে ২ জুলাই, ৬ জুলাই এবং ৮ জুলাই। কবে কোন পরীক্ষা নেওয়া হবে তা পরে বিশদে জানানো হবে।  

এদিন শিক্ষামন্ত্রী জানান, লকডাউন ৪ -এর মধ্যে যখন প্রথম পরিবর্তিত সূচি ঘোষণা করা হয়েছিল, সেই সময় কনটেইমেন্ট জোনে লকডাউন গোটা জুন মাস থাকবে, তা জানা ছিল না। তাছাড়া, রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকেও জুন মাসে স্কুল কলেজ বন্ধ রাখা হয়েছে। তাই গত কয়েকদিন ধরেই বিভিন্ন মহল থেকেই প্রশ্ন উঠছিল এর মধ্যে ২৯ জুন পরীক্ষার্থীরা কীভাবে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছবেন?সেই সঙ্গে কনটেইমেন্ট জোনে পরীক্ষাকেন্দ্র পড়লে, সেখানে কীভাবে পৌঁছনো যাবে, সেই বিষয়েও বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছিল।

তিনি আরও জানিয়েছেন, লকডাউন শুধু নয়, তার উপর বিপদ বাড়িয়েছে আমফান। ঘূর্ণিঝড় আমফানের দাপটে, পরীক্ষাকেন্দ্র হিসাবে চিহ্নিত অনেক স্কুলেরই এখনও বেহাল অবস্থা। পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, এখনও ১১৬ টি স্কুলবাড়ি মেরামত করতে হবে। আরও অনেক প্রস্তুতিই ধাক্কা খেয়েছে এই ঘূর্ণিঝড়ে। এর আগে শিক্ষামন্ত্রী জানিয়ে দিয়েছিলেন প্রতিটি পরীক্ষাকেন্দ্রেই যাতে ৮০ থেকে ১০০ জনের বেশি পরীক্ষার্থী থাকবে না। সরকারের পক্ষ থেকে ২৫০০ স্কুলকে পরীক্ষাকেন্দ্র হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে। লকডাউন-আমফান পরবর্তী সময়ে পরীক্ষাকেন্দ্রগুলি পরীক্ষার্থীদের বাড়ির কাছাকাছি ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

পরীক্ষাকেন্দ্রে ফেস মাস্ক পরে যাওয়াটা বাধ্যতামূলক। সেইসঙ্গে পরীক্ষাকেন্দ্রে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের বোতল থাকতে হবে। সেই স্যানিটাইজার পরীক্ষার্থীদেরই আনতে হবে, না শিক্ষা দফতর থেকে দেওয়া হবে, সেই বিষয়টি এখনও স্পষ্ট নয়। এর সঙ্গে সামাজিক দূরত্ব ও অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনেই পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে।

ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, অ্যাকাউন্ট্যান্সি, ইকোনমিক্স, জার্নালিজম, বিভিন্ন ভাষার পরীক্ষা মিলিয়ে মোট প্রায় ১২টি বিষয়ের পরীক্ষা বাকি।