করোনা ভাইরাসের জেরে কোনও যাত্রীবাহী ট্রেন পরিষেবা বন্ধের  সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় রেল।কলকাতা মেট্রো কর্তৃপক্ষের তরফেও এই খবর জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।এই সিদ্ধান্তের ফলে, কার্যত জনজীবন স্তব্ধ হয়ে যেতে চলেছে।রবিবার একদিকে যখন 'জনতা কার্ফু' চলছে, তার মধ্যেই এই নোটিফিকেশন জারি করা হল সোমবার থেকে কার্যত স্তব্ধ হয়ে যাচ্ছে রেল পরিষেবা।

আরও পড়ুন, করোনা ভাইরাস পরীক্ষার ফি ৪৫০০ টাকার বেশি যেন না হয়, কড়া নির্দেশ বেসরকারি ল্যাবকে

শনিবার রেলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, গত ১৩ থেকে ১৬ মার্চ ট্রেনে যাতায়াত করেছেন এমন ১২ জন যাত্রী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। এরপরই রেল কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করেছে যে রেল যাত্রা মোটেই সুরক্ষিত নয়। 'সহযাত্রী যদি করোনা আক্রান্ত হয় তাহলে  করোনা সংক্রমণের সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়। তাই নিতান্ত প্রয়োজন না হলে ট্রেনযাত্রা বাতিল করুন। নয়তো আপনি করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন।' এমনটাই লেখা হয়েছে সতর্কবার্তায়। অপরদিকে, ট্রেন জানিয়েছে গত ১৩মার্চ সম্পর্ক ক্রান্তি এক্সপ্রেসে যাত্রা করেছেন এমন ৮ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। অপরদিকে, অন্য রাজ্য থেকে যাতে এরাজ্যে কোনও ট্রেন না আসে, তার জন্য রেলের কাছে চিঠিও দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

 

 

আরও পড়ুন, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মোদীর আহ্বানে সাড়া , জনতা ফারফিউতে কার্যত স্তব্ধ তিলোত্তমা

অপরদিকে, কোনও যাত্রী আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত নির্ধারিত সফরের টিকিট বাতিল করলে, সেই মূল্যের ১০০ শতাংশই ফেরত পাবেন। এ ছাড়া শনিবার মধ্যরাত থেকে কোনও স্টেশন থেকে কোনও প্যাসেঞ্জার ট্রেন ছাড়া হয়নি। এই বিধিনিষেধ জারি থাকার কথা ছিল রবিবার রাত ১০টা পর্যন্ত। কিন্তু এবার সেই সময়সীমাই এবার বেড়ে হল ৩১ মার্চ পর্যন্ত।

 

করোনা মোকাবিলায় রক্ষা করুন নিজেকে, মেনে চলুন 'হু' এর পরামর্শ
 

সাবধান, করোনা আতঙ্কের মধ্যে এই কাজ করলেই হতে পারে জেল

শরীরে কীভাবে থাবা বসায় করোনা, জানালেন বিশেষজ্ঞরা