নারদ মামলায় ডিভিশন বেঞ্চের মধ্যে মত বিরোধ। এবার বৃহত্তর বেঞ্চে নারদ মামলা।  আদালত সূত্রে খবর, এদিন দুপুর দুটোর সময় সেই বৃহত্তর বেঞ্চ বসতে পারে। সেখানে হতে পারে শুনানি। আইনজীবী মহলের একাংশের মত, এদিন শুনানি হবে কিনা, সেটা নির্ভর করছে বৃহত্তর বেঞ্চের তৃতীয় বিচারপতি উপর। তিনি শুক্রবারেই মামলাটি শুনতে রাজি হলে, তবেই এদিন শুনানি হবে। না হলে সোমবার শুনানির সম্ভাবনা। 

আরও পড়ুন, বেআইনি আর্থিক লেনদেনের জের, অর্জুন সিংহকে তলব করল CID 

 

 

 উল্লেখ্য, অভিযুক্তদের আইনজীবি শনিবার-রবিবারেও এই মামলার শুনানির দাবি করেছেন। অপরদিকে চার হেভিওয়েটদের  জেল হেফাজত থেকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। আপাতত মদন-শোভন-সুব্রত-ফিরহাদকে থাকতে হবে গৃহবন্দি। শুক্রবার সকালেই ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দল এবং বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্য়োপাধ্য়ায়ের ডিভিশন বেঞ্চেই এই শুনানি হয়েছে। অন্তবর্তী জামিন নিয়ে সেখানে দুই বিচারপতির মধ্যে মত পার্থক্য তৈরি হয়। অরিজিৎ বন্দ্য়োপাধ্য়ায় জামিন মঞ্জুর করলেও এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি। এবং এই অর্ডার নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। এরপরেই অন্তবর্তী জামিন ঘিরে জটিলতা তৈরি হয়। 

আরও পড়ুন, প্রাণের ভয়ে রাস্তায় কাটছিল রাত, তৃণমূলের বিধায়কের উদ্যোগে ঘরে ফিরল প্রায় ১০০ BJP কর্মী  

 


শনিবার বন্ধ রয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। এদিকে বেলা ২ টো থেকে বৃহত্তর বেঞ্চে মামলা শুরু হলে সেটা কোনওভাবেই ২ ঘন্টার মধ্য়ে শেষ হবে না। সেক্ষেত্রে হেভিওয়েটদের আইনজীবীরা আর্জি জানিয়েছেন যাতে শনিবারও এই মামলার শুনানি হয়।  এ প্রসঙ্গে মদন মিত্রের আইনজীবী বলেছেন,' দুই বিচারপতির মধ্যে মত পার্থক্য রয়েছে। বিষয়টি বৃহত্তর বেঞ্চে যাচ্ছে। হাউজ এরেস্টের অর্ডার আছে। তবে সরকারি কাজকর্ম বাড়ি থেকে করতে পারবেন।'