একই দিনে রাজ্য়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া বেড়ে দাঁড়ালো তিন । যার জেরে পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া বেড়ে এখন ১৮ । নাইসেড সূত্রে খবর, শনিবার সন্ধ্য়ায় উত্তরবঙ্গের ওই ব্যক্তির রিপোর্ট পজিটিভ আসে। lপ্রথমবার লালারসের নমুনা পজিটিভ এলেও তা নিয়ে নিশ্চিত হননি নাইসেডের কর্তারা। ফের নমুনা পরীক্ষায় ফল পজিটিভ এলেই তা স্বাস্থ্য় দফতরকে জানানেো হয়।

এগড়ায় বিয়েবাড়ি থেকে দুই মহিলার করোনা ! নয়াবাদের আক্রান্ত থেকেই সংক্রমণ.

এর আগে এগড়া থেকে ১১টি নমুনা আসে পরীক্ষার জন্য়। যার মধ্য়ে দুটি লালারসের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। বিকেলে  সংক্রমণের শিকার হন একই পরিবারের দুই মহিলা। সূত্রের খবর, নয়াবাদের করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে এসেই আক্রান্ত হয়েছেন ওই দুই মহিলা।  এদের মধ্য়ে একজন ৭৬ বছরের বৃদ্ধা। অন্যজন ৫৬ বছরের প্রৌঢ়া। এছাড়াও এদিন উত্তরবঙ্গ, মালদা বীরভুম থেক সব মিলিয়ে ৮টি সন্দেহজনক করোনা আক্রান্তের নমুনা পরীক্ষার জন্য় আসে। যার মদ্য়ে উত্তরবঙ্গের নুমনা পজিটিভ পাওয়া যায়।

রাজ্য়ে করোনা আক্রান্ত আরও ২, সংখ্যা বেড়ে ১৭.

এরপরই খোঁজ শুরু হয় ওই ব্যক্তির আত্মীয়স্বজনের। বিগত কিছুদিনে যারা ওই ব্য়ক্তির সংস্পর্শে এসেছেন খোঁজ শুরু হয়েছে তাদেরও। ভিন রাজ্য় বা ওই ব্যক্তির সঙ্গে বিদেশের কোনও যোগ আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখছে স্বাস্থ্য় দফতর। এমনকী উত্তরবঙ্গে এরমধ্য়ে কোনও বিদেশি পর্যটকের সঙ্গে ওই ব্যক্তির যোগাযোগ হয়েছে কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে তাও।

মমতার ডাকে সাড়া,করোনা রুখতে প্রচারে নোবেলজয়ীরা.

এদিকে আগের দুই মহিলা হাসপাতালের কোয়ারেনটাইনে ছিলেন বলে জানা যাচ্ছে। এই দুই মহিলাই দিঘার বাসিন্দা। মনে করা হচ্ছে, দুজনেই করোনা সংক্রান্ত রোগীর সংস্পর্শে এসেছিলেন। তবে বিদেশ যাত্রার কোনও ইতিহাস তাঁদের নেই। এই মুহূর্তে দুজনেরই চিকিৎসা চলছে বেলেঘাটা আইডিতে। নতুন করে দুজনের আক্রান্ত হওয়ার খবরে তীব্র আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। এ দিন করোনা আক্রান্ত সন্দেহে চিকিৎসাধীন মোট ৩৭ জনের লালারস পরীক্ষার রিপোর্ট রাজ্য প্রশাসনের হাতে এসেছে। এর মধ্যে দুই মহিলার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।