রোগীর পর এবার চিকিৎসক। রাজ্য়ে করোনায়  আক্রান্ত  হলেন এক চিকিৎসক। নাইসেড সূত্রে খবর, রবিবার ওই চিকিৎসকের নমুনা করোনা পজিটিভ এসেছে। জানা গিয়েছে, ওই চিকিৎসক কমান্ড হাসপাতালের অ্য়ানাস্থিওলজিস্টের কাজ করতেন। এদিন ওই চিকিৎসকের আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় রাজ্য়ের করোনা সংক্রমিত হলেন মোট ১৯ জন। 

রাজ্য়ে ২০ ছুঁল করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া, এবার আক্রান্ত প্রবীণ নাগরিক.

সূত্রের খবর, ওই চিকিৎসক সম্প্রতি দিল্লি গিয়েছিলেন। সেখান থেকে ১৭ মার্চ ফেরেন কলকাতায়। ১৮ মার্চ থেকে যথারীতি আলিপুর কমান্ড হাসপাতালে কাজ শুরু করেন তিনি। গত ২২ মার্চ পর্যন্ত তাঁর কোনও সমস্যা হয়নি বলে জানা গিয়েছে। যদিও এরপর থেকেই অসুস্থ বোধ করেন তিনি। প্রথমে তাঁর ভাইরাল নিউমোনিয়া হয়েছে বলে সন্দেহ করেন চিকিৎসকরা। কিন্তু পরে লালারস পরীক্ষা করতেই করোনা  রিপোর্ট পজিটিভ আসে। 

সুস্থ রাজ্য়ের তিন করোনা আক্রান্ত, বুকে বল পেল রাজ্য়বাসী.

জানা গিয়েছে, করোনায়  আক্রান্ত চিকিৎসক কমান্ড হাসপাতালের অ্যানেস্থেশিয়া বিভাগের প্রধান। বর্তমানে  তাঁর অবস্থা  স্থিতিশীল। প্রথমে সিটি  স্ক্যান করে তাঁর শরীরে জটিল নিউমোনিয়া হয়েছে বলে ধারণা করা হেয়চিল। কিন্তু পরে সেই ভুল ভাঙে চিকিৎসকদের। এদিকে চারদিন ওই অ্য়ানেস্থিওলজিস্ট রোগী দেখেন বলে জানিয়েছেন কমান্ড হাসপাতালের ডাক্তাররা। য়ার ফলে বহু ডাক্তার রোগী ও স্বাস্থ্য়কর্মী তাঁর সংস্পর্শে এসেছেন।

সোমবার থেকে খোলা থাকছে সব ব্যাঙ্ক, লকডাউনে সুবিধা দিতেই সিদ্ধান্ত.

এখন তাদের খোঁজ শুরু করা হয়েছে। স্বাস্থ্য় দফতরে ইতিমধ্য়েই েই চিকিৎসকের নাম পাঠানো হয়েছে। যেহেতু তিনি সেনা হাসপাতালের সঙ্গে জড়িত তাই কেন্দ্রের কাছেও আক্রান্ত চিকিৎসকের বিষয়ে জানানো হয়েছে। কিন্তু কোথা থেকে চিকিৎসকের শরীরে করোনা এল তা নিয়ে চিন্তায় পড়েছে খোদ কমান্ড হাসপাতালের চিকিৎসকরা। ইতিমধ্য়েই ওই চিকিৎসকের সংস্পর্শে কোনও জওয়ান এসে থাকলে তার খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। দিল্লিতে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির থেকেই কি ওই চিকিৎসকের সংক্রমণ না কামান্ড হাসপাতালের কোনও রোগীর থেকেই এই সংক্রমণ হয়েছে তাঁর। যা নিয়ে ধন্ধে কোদ চিকিৎসকও।