পুজোর ছুটির পরে প্রথম কাজের দিনেই ফের মেট্রোতে আত্মহত্যার চেষ্টা। যার জেরে ব্যস্ত সময়ে ব্যাহত মেট্রো চলাচল। এ দিন সকাল ৯.২৪ মিনিটে গীতাঞ্জলি স্টেশনে দমদমগামী একটি ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দেন এক যাত্রী। যার জেরে আপাতত মহানায়ক উত্তম কুমার থেকে কবি সুভাষের মধ্যে বন্ধ রয়েছে মেট্রো চলাচল। নোয়াপাড়া থেকে টালিগঞ্জ পর্যন্ত দু' দিকেই ট্রেন চলছে। 
 

পরে জানা যায়, মেট্রো সামনে ঝাঁপ দেওয়া বৃদ্ধের নাম হারানচন্দ্র মজুমদার। তিনি কলকাতার রামগড় এলাকার বাসিন্দা। ঘটনাস্থলেই ওই বৃদ্ধের মৃত্যু হয়। ট্রেনটিকে সরিয়ে তাঁর দেহ  উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ। মৃতের মানিব্যাগ থেকে তাঁর পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নম্বর পাওয়া গিয়েছে। তাঁর পরিবারকেও দুর্ঘটনার খবর দেওয়া হয়েছে। কী কারণে ওই বৃদ্ধ আত্মহত্যা করলেন, তা এখনও স্পষ্ট নয়। 

ঘটনার জেরে ব্যস্ত সময়ে দীর্ঘক্ষণ কবি সুভাষ এবং মহানায়ক উত্তম কুমারের মধ্যে মেট্রো চলাচল বন্ধ ছিল। প্রায় পয়তাল্লিশ মিনিট পরে পরিষেবা স্বাভাবিক হয়।