শীতকালকে এবার  বিদায় জানানোর পালা। শীতকাল আসলেই বিভিন্ন ধরনের শীত পোশাকের সম্ভার নিয়ে যেমন দোকানিরা সাজিয়ে বসে তেমনি আমাদেরও হাজার রকমের পোশাক নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট চলতেই থাকে। কিন্তু এবার শীতের শেষে পোশাকগুলি যথাস্থানে তোলার সময় চলে এসেছে। কারণ একবার ব্যবহারের পরে তা পরিস্কার করা কিংবা  কাচাও সম্ভব হয় না। কিন্তু শীতের শেষে সমস্ত পোশাক পরিস্কার করা মাস্ট। সামান্য একটু পরিচর্যা করলেই শীত পোশাককে নতুনের মতো রাখা যায়। শীতকালীন পোশাককে ভাল রাখার সহজ কিছু পদ্ধতি রইল। 

আরও পড়ুন-করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২০০০, ক্রমশ বাড়ছে মৃত্যু মিছিল...

ক্লাব সোডা

শীতের সোয়েটার বা কম্বলে কোনও জেদি দাগ থাকলে তা সঙ্গে সঙ্গে পরিস্কার করে নিন। পুরোনো দাগ সোয়েটার থেকে ওঠানো খুব মুশকিল হয়ে যায়। তবে দাগ তোলার ক্ষেত্রে কোনও সাবান সরাসরি ব্যবহার করবেন না। তার বদলে ঠান্ডা জলের সঙ্গে মাইল্ড ডিটারজেন্ট, ক্লাব সোডা, মিশিয়ে যে জায়গায় দাগ লেগেছে সেখানে কিছুক্ষণ রেখে তারপর ধুয়ে ফেলুন।

ভাল করে ঝাড়ুন

শীতে মাঝে-মধ্যেই ঝলমল করে রোদ ওঠে। যেদিনই রোদ উঠবে সেদিনই মনে করে শীত পোশাক, কম্বল রোদে দেবেন। এতে খুব সহজেই ধুলো গুলো চলে যায়।  এবং উলের তৈরি পোশাকগুলিও বেশ আরামদায়ক হয়ে ওঠে।

 


 

ঠান্ডা জল দিয়ে পরিস্কার করুন

শীতের পোশাক বারবার কাচবেন না। এতে উলের ঝলমলে ভাব নষ্ট হয়ে যায়। কাচার সময় সবসময় ঠান্ডা জল ব্যবহার করুন। খুব জোরে জোরে কখনওই কাঁচবেন না। এতে উলগুলি নষ্ট হয়ে যেতে পারে। অথবা রোয়া বেরিয়ে যেতে পারে।

খোলা হাওয়াতে রাখুন

ড্রায়ার দিয়ে শীতপেশাক শোকালে তাতে পোশাকের তন্তুর ক্ষতি হয়। তাই ড্রায়ার ভুলে বাতাসে শুকিয়ে নিন শীত পোশাক। আবার কড়া রোদেও পোশাক বা কম্বল না শোকানোও ভাল তার বদলে হালকা ছায়া আবার স্যাঁতস্যাতে নয়, এমন জায়গায় শীত পোশাক শোকান।

নিমপাতা রাখুন

শীতের পোশাক পরিস্কারের পর যেই জায়গায় রাখবেন সেখানে কয়েকটি নিমপাতা রাখুন। এতে অনেক উপকার পাবেন।