খিদের সময় খাবার না খেলেই তৈরি হয় গ্যাস, তা থেকে সমস্যা বাড়ে, শুরু হয় পেটে ব্যাথা।  তাই তখনই মুখে পুরে ফেলতে হয় কিছু না কিছু। কিন্তু অসময়ের খিদেকে নিয়ন্ত্রণে না রেখে কেবলই খাই খাই স্বভাবের জন্ম হলেই বিপত্তি। বাড়তে থাকবে শরীরের মেদ। তাই অসময়ের খিদেকে এড়িয়ে চলুন। দেখা মাত্রই মুখে পুরে দেওয়া নয়, সংযত থাকুন। তাতে শরীরের বারতি মেদ জমার হাত থেকে মুক্তি পাবেন। 
অসময়ের 
খিদে কমানোর জন্য রইল কয়েকটি টিপসঃ

১. মিন্টের গন্ধ বা মিন্ট জাতীয় কোনও লজেন্স খেলে খিমে কমে যায়। বা তখন আর খাবারের দিকে ঝুঁকতে হয় না। এই গন্ধের মোমবাতি ঘরে জ্বালাতে পারেন। সুফল মিলবে তাতেও।

২. চা খাওয়া যেতে পারে। চা থেকে মেদ বাড়ার কোনও সম্ভাবনাই নেই, কিন্তু চা খেলে খিদে কমে যায় অনেকাংশে। তাই অসময় খিদে পেলে পেট ভরে খাবার না খেয়ে চা খেয়ে নেওয়া যেতে পারে।

৩. আপেল খান, আপেলে পুষ্টির পরিমাণের মাত্রা এতো বেশি থাকে যে তা খেলে খিদে পেতে বেশ কিছুটা সময় লাগে। এবং অনেক্ষম পেট ভর্তি থাকে। শুধু তাই নয়, এ থেকে মেদ জমারও কোনও সম্ভাবনাও থাকে না।

৪. জল খান বেশি করে, জলের মাত্রাা যদি শরীরে সঠিক থাকে, তবে শরীরের অনেক সমস্যায়ই কমে যায় এক ধাক্কায়। তাই জল বেশি করে খেলে খিদে কম পায়, সময়ে খাওয়া খাবার ভালো মতন হজমও হয়।

৫. প্রতিদিন ব্যায়ম করলে অসময় খিদের মাত্রা কমে যায়। তাই দিনের শুরুতে ব্যায়ম করার জন্য সাময়িক সময় হাতে রাখুন। মিলবে সুরাহা।