বিয়ের নেমন্তন্ন খেতে গিয়েছিলেন গৃহকর্তা। দরজার তালা ভেঙে বাড়ি থেকে গয়না-সহ কয়েক লক্ষ টাকা সামগ্রী লুঠ করে চম্পট দিল দুষ্কৃতীরা! দুঃসাহসিক ডাকাতির ঘটনার ঘটল মেদিনীপুর শহরে।

মেদিনীপুর শহরের নবীনাবাগ এলাকায় একটি বাড়ির একতলায় ভাড়া থাকেন আশিষ বাগ। বাড়িওয়ালা থাকেন দোতলায়।  কিন্তু চিকিৎসাজনিত কারণে এখন তিনি অন্যত্র গিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে বিয়েবাড়িতে গিয়েছিলেন আশিষ। সোমবার সন্ধ্যায় বাড়ি ফাঁকাই ছিল। সেই সুযোগে দরজা ভেঙে বাড়িতে ঢুকে পড়ে ডাকাতরা। ঘণ্টার চারেক বাদে ওই দম্পতি যখন ফেরেন, তখন দেখেন, বাড়ির দুটি দরজার তালাই ভাঙা। ঘরের ভিতরে আলমারী-সহ সবকিছু লণ্ডভণ্ড অবস্থায় পড়ে রয়েছে। ঘটনাটি জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। আশিষ বাগের দাবি, সোনা ও রূপার গয়না, নগদ টাকা ও অন্যন্য সামগ্রী লুঠ হয়ে গিয়েছে। ঘটনার পর বাড়ির পিছনের দরজা দিয়ে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। কোতুয়ালি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্তেরা এখনও অধরা। ভরসন্ধেবেলায় এমন ঘটনায় আতঙ্কিত স্থানীয় বাসিন্দারা। পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলেছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন:চোরের উপর বাটপারি, পাচারের সোনা ছিনতাই করে মালদহে গ্রেফতার এএসআই

উল্লেখ্য, মাস খানেক আগে মেদিনীপুর শহরে দুষ্কৃতীদের খপ্পরে পড়েছিলেন বেসরকারি ব্যাঙ্কে এক লোন কালেকশন এজেন্ট। ভরদুপুরে মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে তাঁর কাছ কয়েক লক্ষ টাকা লুঠ করে নেওয়া হয়। সেই ঘটনায় অভিযুক্তরাও এখনও ধরা পড়েনি। আর এবার ফাঁকা বাড়িতে ঢুকে লুঠপাট চালাল দুষ্কৃতীরা।