সন্ত্রাসবাদী হামলায় এবার ভিজল পাকিস্তানের মাটি।  করাচিতে জঙ্গি হামলা। নিরাপত্তার চাদরে মোড়া পাকিস্তান স্টক এক্সচেঞ্জের বিল্ডিং-এই সোমবার সকাল ১০টা নাগাদ হানা দেয় জঙ্গিরা। করাচির পুলিস প্রধান গুলাম নবি মেমন জানিয়েছেন চার জন সন্ত্রাসবাদী হানা দিয়েছিল স্টক এক্সচেঞ্জের বিল্ডিং-এ। পুলিশের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে প্রত্যেকেই নিহত হয়েছে। 
 

এইঘটনার পরই গোটা এলাকায় লাল সতর্কতা জারি করা হয়েছে। চার বন্দুকবাজের হামলায় চার পুলিশ নিরাপত্তা রক্ষী, এক পুলিশ কর্মী ও খাবার সরবরাহকারীর মৃত্যু হয়েছে। পাক প্রশাসন সূত্রের খবর এদিনের হামলায় এখনও পর্যন্ত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

'ভারতীয় ভূখণ্ড গ্রাস করছে চিন', সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি দিয়ে অভিযোগ বিজেপি নেত্রীর ...  

মেয়েকে ঘুমে আচ্ছন্ন করে রেখে ধর্ষণ করল বাবা, আত্মহত্যার চেষ্টা তরুণীর ...

আকসাই চিন থেকে ভারতকে দূরে রাখার লক্ষ্যেই সীমান্ত উত্তাপ, বেজিং-এর গেম প্ল্যান তেমনই বলছে ...

পাক প্রশাসনের খবর অনুযায়ী বন্দুকবাররা একটি বিলাশ বহুল গাড়িতে চড়েই হামলা চালিয়ে ছিল। উদ্ধার হয়েছে একে ৪৭ সহ একাধিক আগ্নেয়াস্ত্র। হ্যান্ড গ্রেনেড, বিস্ফোরক তৈরির সামগ্রী। প্রাথমিকভাবে তদন্তকারীরা মনে করছে বড় কোনও হামলা ছক ছিল। কিন্তু কর্তৃব্যরত পুলিশের সক্রিয়তায় প্রথমে তা রুখে দেওয়া গেছে। 

তবে তদন্তকারীদের প্রশ্ন, এই অফিস ভবনটি নিরাপত্তার ঘেরাটোকে থাকে। স্টক এক্সচেঞ্জ ছাড়াও বেশ কয়েকটি সরকারি ও বেশরকার ব্যাঙ্কের হেড অফিস রয়েছে এখানে। তাই মূল ভবনে প্রবেশের আগেই বন্দুকবাজরা গুলি চালাতে শুরু করে। নির্বিচারে গুলি চালানোর পাশাপাশি গ্রেনেড হামলাও করে। তারপরই পাল্টা রুখে দাঁড়ায় পুলিশ। বর্তমানে নিহত জঙ্গিদের দেহগুলি পুলিশ নিজেদের হেফাজতে রেখেছে। তবে এখনও পর্যন্ত কোনও জঙ্গি সংগঠন এই হামলার দায় স্বীকার করেনি।