ঠাকুরনগর থেকে মমতাকে তোপ অমিত শাহ-র। এদিন তিনি বলেন,  ' সিএএ (CAA) নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানো হয়েছে'। করোনার কারণেই নাগরিকত্বের কাজ পিছিয়ে গিয়েছিল। ভ্যাকসিন পর্ব শেষ হলে নাগরিকত্ব দেওয়ার কাজ শুরু করা হবে।

আরও পড়ুন, 'টলিউডে মাফিয়ারাজ চলছে', শাসকদলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক রুদ্রনীল 

 

অপরদিকে তিনি বলেন, আগেরবার আমার সভা বাতিল হয়েছিল। কিছু কারণের জন্য আগেরবার ঠাকুরনগরে আসতে পারিনি। মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায় নিশ্চয় খুব খুশি হয়েছিলেন। মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায় যতোক্ষণ না হারেন, বারবার ঠাকুরনগরে আসব। বাংলার সরকার গড়বে বিজেপি।  এদিন তিনি আরও বলেন, 'দলিত-আদিবাসী-পিছিয়ে পড়া মানুষের জন্যই কাজ করছে বিজেপি। এরপরে তিনি বলেন, মমতার আমলে বাংলা ধ্বংস হয় গিয়েছে। ইতিমধ্যেই দেশের কৃষকরা ১২ হাজার করে টাকা পেয়েছেন। বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় এলে ১৮ হাজার করে কৃষকদের টাকা দেবে বিজেপি।' এরপরে শাহ ফের হুঙ্কার দেন যে এপ্রিলের পরে আর মমতা মুখ্যমন্ত্রী থাকবেন না। 

 

আরও পড়ুন, 'উত্তরপ্রদেশের কেবল পুলিশ নয়, সাংবাদিকরাও খুন হয়', মুর্শিদাবাদে বিস্ফোরক মমতা  

 

অপরদিকে তিনি আরও বলেন, পরিবর্তন যাত্রা এবং জয় শ্রীরাম স্লোগান বিতর্কের জবাব দিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ। শাহ জানিয়েছেন, সংখ্য়ালঘু সম্প্রদায়কে নিয়ে তোষণের রাজনীতি করার কারণেই রামনাম পছন্দ করেন না। যদিও ভোটের পরেই ফিরবে বারবার এই স্লোগান বার্তা শাহ-র।