শনিবার মোদীকে মেদিনীপুর থেকেই একের পর এক তোপ দাগলেন মমতা। তাও আবার কিনা সেই খড়গপুরে মোদী সফরের দিনেই। একদিকে যখন বেলা পড়তেই রাজ্য়ের রেল শহরে নির্বাচনী প্রচারে এসে বাজিমাত করলেন প্রধানমন্ত্রী। অপরদিকে তখন মোদীর নিশানায় তখন মমতা। তাই মোদীর সভার পরপরেই মমতাও এদিন পাল্টা জবাব দিলেন প্রধানমন্ত্রীকে।

 

আরও পড়ুন, '৭০ বছর অনেককে সুযোগ দিয়েছেন-এবার BJPকে দিন', 'মিনি ভারত- খড়গপুর'-এ অনুরোধ মোদীর 

 

 

 এদিন পাশকুড়ায় মমতা আরও বলেছেন, 'এখানে আগে গদ্দারদের জমিদারি চলত।' তবে এবারেও মোদীকে তোপ দাগতে গিয়ে নাম না করেই 'গদ্দার-মীরজাফর' বলে শুভেন্দুকেও নিশানা করেন মমতা। তোপ দাগার পাশপাশি মমতা ফের বলেছেন, আবার যদি পুনরায় তৃণমূল সরকারে আসেন তাহলে মানুষের বাড়িতে রেশন পরিসেবা পৌঁছে দেবো। আপনাদের আর কষ্ট করে রেশন দোকানে যেতে হবে না। আমাদের সরকার ক্ষমতায় এলে প্রতিটি মায়ের একাউন্টে ৫০০ টাকা করে দেবো। কৃষক বন্ধুরা যাদের ৬০০০ টাকা করে দিই সেটা ১০ হাজার টাকা হবে। দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রছাত্রীদের যে দশ হাজার টাকা দিচ্ছি আমরা সরকারে এলে সেই দশ হাজার টাকা পূনরায় চলতে থাকবে। ছাত্র ছাত্রীদের পড়াশোনার সুবিধার জন্য ১০ লাখ টাকা করে ক্রেডিট কার্ড দেওয়া হবে। সুশীল ধাঁড়া, মাতঙ্গিনী হাজরাকে প্রনাম জানিয়ে বলি এই রাজ্যে অনেক কাজ হয়েছে আমরা থাকলে আরো কাজ হবে।'

 আরও পড়ুন, 'দিদিকে গণতন্ত্র ধ্বংস করতে দেওয়া যাবে না', মোদীর কথায় ঢেউ খেলল খড়গপুরের জনসমুদ্রে, দেখুন ছবি 

এদিন  পাশকুড়ায় সভা থেকে মমতা বললেন,' বিজেপি দুর্ধোধন দুঃশাসনের দল। খালি রাজ্য়ে এসে বড় বড় কথা। কিছু করেনি তৃণমূল সরকার। তো তোমরা কি করেছো বলে তৃণমূল সুপ্রিমো আর বাংলা ভাষায় থাকতে পারলেন না।  'দিল্লিমে কেয়া কিয়া-লাড্ডু কিয়া' হুইল চেয়ারে বসেই হিন্দিতে মোদীকে করলেন নিশানা। জ্বালানীর মূল্যবৃ্দ্ধি নিয়েও এদিন ফের মোদীকে আক্রমণ করেন তৃণমূল সুপ্রিমো।