পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন ২০২১-এর প্রথম পর্বের ভোট গ্রহণ শুরু হতে আর মাত্র কয়েক ঘন্টা বাকি। এখনও থামল না হিংসা। শনিবার ভোট হতে যাওয়া এলাকার দুই জায়গায় দুটি ভয়াবহ হিংসার ঘটনা ঘটল। পুরুলিয়ার বান্দোয়ানে নির্বাচন কমিশনের একটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দিল অজ্ঞাত পরিচয় কিছু দুষ্কৃতী। আর পূর্ব মেদিনীপুরের পটাশপুরের আবহাওয়া উত্যপ্ত হল দিদি ও মোদীর দলের সংঘর্ষে।

শুক্রবার রাতে, পুরুলিয়ার বান্দোয়ানের এক স্থানে বুথ কর্মীদের নামিয়ে ফিরছিল নির্বাচন কমিশনের একটি গাড়ি। সেইসময়ই পাশের জঙ্গল থেকে কিছু অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতী একটি রাসায়নিক ছুঁড়ে দেয় গাড়িটি লক্ষ্য করে, এমনটাই গাড়িটির চালকের অভিযোগ। এরপর তাকে  বের হতে না দিয়ে গাড়িটিতে আগুন ধরিয়ে দেয় দুষ্কৃতীরা। তারপর আবার জঙ্গলের পথেই পালিয়ে যায়। তাদের মুখ ঢাকা ছিল গামছা দিয়ে।

পরে গাড়ি-চালক বের হতে পারলেও, পুরো গাড়িটিই ঝলসে যায়। ঘটনার পর আপাতত পুরো এলাকা ঘিরে ফেলেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী ও বান্দোয়ান থানার পুলিশ। জঙ্গেলর পথেও অনুসন্ধান চলছে ওই দুষ্কৃতীদের। কারা এই কাজ ঘটালো তাই নিয়ে রহস্য তৈরি হয়েছে। একসময়, পুরুলিয়ার বান্দোয়ান ছিল মাওবাদী জঙ্গীদের স্বর্গরাজ্য। যৌথবাহিনীর সঙ্গে তাদের সংঘর্ষে প্রতিদিনই রক্ত ঝরত। তবে মমতা সরকার আসার পর ধীরে ধীরে প্রভাব কমেছিল মাওবাদীদের। এই হামলার সঙ্গে মাও হামলার ধরণ একেবারে মিলে যাচ্ছে। তাই এর পিছনে তাদের হাত আছে কি না, সেই জল্পনাও তৈরি হয়েছে। 

ঘটনাস্থলে কেন্দ্রীয় বাহিনীর পাশাপাশি রয়েছেন রাজ্য পুলিশের আধিকারিকরাও। তাঁরা  জানিয়েছেন, ফরেন্সিক পরীক্ষার পরই বলা যাবে, কী ধরণের রাসায়নিক ছোঁড়া হয়েছিল। 

আরও পড়ুন - 'ভাইপো'র জন্যই কি ডুবছে তৃণমূল, নাকি আসন্ন নির্বাচনে তিনিই 'দিদি'র অক্সিজেন

আরও পড়ুন - বঙ্গ ভোটে পদ্ম হাতে ৯ মুসলমান, বিজেপি কি সত্যিই সংখ্যালঘু-বিরোধী - কী বলছেন প্রার্থীরা

আরও পড়ুন - মমতা, আব্বাস না বিজেপি - কোথায় যাবে মুসলিম ভোট, বাংলার নির্বাচনে এবার সবথেকে বড় ধাঁধা

অন্যদিকে, পূর্ব মেদিনীপুরের পটাশপুরের এক জায়গায় ভোটের আগের দিনই মুখোমুখি সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লেন তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপি দলের কর্মী-সমর্থকরা। রীতিমতো বাঁশ-লাঠি নিয়ে উদ্যত অবস্থায় দেখা যায় তাদের।