রাজ্যে ২৩ দিন ধরে ৮টি দফায় বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। গত শুক্রবাবর পশ্চিমবঙ্গসহ পাঁচ রাজ্যে নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশ করে তেমনই জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। প্রথম থেকেই ৮ দফা নির্বাচনের তীব্র বিরোধিতা করেছিল রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। এবার নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদেবন জমা পড়ল সুপ্রিম কোর্টে। সোমবার আইনজীবী এমএল শর্মা আট দফার নির্বাচনের ওপর স্থগিতাদেশ চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন দায়ের করেছেন। 

সুপ্রিম কোর্টে দায়ের করা আবেদনে আট দফা নির্বাচনের ওপর স্থাগিতাদেশ চাওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে  বলা হয়েছে এটি  সংবিধানের ১৪ নম্বর ধারা ও ২১ নম্বর ধারায় জীবনের অধিকার লঙ্ঘন করে। পাশাপাশি রাজ্যে ভোট প্রচারে ধর্মীয় স্লোগান দেওয়ার অভিযোগে সিবিআই-এর কাছে অভিযোগ জানানোর নির্দেশও চাওয়া হয়েছে। আবেদনা বলা হয়েছে জয় শ্রী রাম ও অন্যান্য ধর্মীয় স্লোগান বৈষম্য তৈরি করছে। ইন্ডিয়ান পেনাল কোড ও ১৯৫১ সালের জনপ্রতিনিধিত্ব আইনের অধীনে একটি অপরাধ হিসেবে গন্য হবে। 

গত শুক্রবার নির্বাচন কমিশন পশ্চিমবঙ্গ, অসম, তামিলনাড়ু, কেরল ও পুদুচেরিতে বিধানসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ প্রকাশ করেছে।যেখানে বলা হয়েছে এই রাজ্যে আট দফায় নির্বাচন হবে। অসম তিন দফায় ভোট গ্রহণ করা হবে। বাকি তিন রাজ্যে একটি দফায় ভোট গ্রহণ হবে। কমিশনের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রথম থেকেই সরব হয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী। তবে সাংবাদিক বৈঠকে তিনি জানিয়েছিলেন নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তকে মান্যতা দিয়ে তাঁরা যেভাবে চাইছেন সেভাবেই ভোট গ্রহণ করা হবে। একই সঙ্গে তিনি অভিযোগ করেছিলেন বিজেপির অঙ্গুলিহেলনেই এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে নির্বাচন কমিশন।