পুরুলিয়ায় এসেই পানীয় জলের ইস্যুতেই মমতার সরকারকে নিশানা মোদীর।জলসঙ্কটের জেরে পানীয় জল সংগ্রহ করতে পুরুলিয়াবাসীকে অনেক দূর যেতে হয়-এই বিষয়ে বামপন্থী -তৃণমূল এবিষয়ে কিছুই করেনি, নিজের খেলায় ব্যস্ত তৃণমূল- পুরুলিয়ার ,সভা মঞ্চে এসে বললেন মোদী।

এদিন সভামঞ্চে উঠেই মোদী বললেন,' রাঙামাটির দেশে পা রেখে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি ।  বাংলার সমস্ত পথকে রেল পথে জুড়ব, ফ্রেট করিডোরে জুড়বে পুরুলিয়া। পশ্চিমবঙ্গে রেলের যোগাযোগ মাধ্যম আরও উন্নত করার জন্য ৫০ হাজার কোটি টাকার স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। বাংলায় ডবল ইঞ্জিন সরকার তৈরি হলে সব সমস্যার সমাধান হবে। পর্যটন শিল্প, হস্তশিল্পের বিকাশের সম্ভাবনাকেগুলিকে গুরুত্ব দেওয়া হবে, বলেন মোদী। এরপরেই মোদী মমতার খেলা হবে স্লোগানের পাল্টা আক্রমণ করে বলেছেন, 'দিদি বলে খেলা হবে-বিজেপি বলে মহিলা যুবশক্তির বিকাশ হবে-শিক্ষা হবে-চাকরি হবে'। 'বছরের পর বছর ধরে একটা সেতুও তৈরি করতে পারলো না তৃণমূল আর এখন বলছে উন্নয়নের কথা' বলে খোঁচা দেন মোদী।

 অপরদিকে মোদী আরও বলেন, 'অত্যাচার অনেক করেছ দিদি, ভয় দেখানোই তোমার অস্ত্র। মা দুর্গার আশীর্বাদে বাংলার মানুষ করবে তোমায় পরাস্ত।১০ বছর খেলেছেন দিদি এবার খেলা শেষ হবে, উন্নয়ন আরম্ভ হবে। লোকসভাতে তৃণমূল 'হাফ', এ বার পুরো সাফ' বলেও চ্যালেঞ্জ ছোড়েন এদিন মোদী।