'বাংলার কৃষকদের কিষাণ সম্মান নিধি থেকে বঞ্চিত করেছেন দিদি' কাঁথির সভায় মমতাকে কৃষি সহ একাধিক ইস্যুতে নিশানা করলেন মোদী। এদিন সরাসরি মুখ্যন্ত্রীর কাছে গত ১০ বছরে কী কী কাজ হয়েছে বলতে হবে বলে আক্রমণ করেন প্রধানমন্ত্রী। 

 

আরও পড়ুন, 'কবিগুরুর এই মাটিতে কেউ বহিরাগত নন দিদি', মোদীর যুক্তি শুনে বাঁকুড়ায় কী বার্তা মমতার 

 

এদিন মমতাকে আক্রমণ করে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী, 'কৃষি আইনের সুফল নিয়ে নীরব বিরোধীরা, বাংলার কৃষকরা কিষাণ সম্মান নিধি থেকে বঞ্চিত। কেন্দ্রীয় সরকারের কিষাণ সম্মান নিধি প্রকল্পের টাকা বাংলার কৃষকদের কাছে পৌছতে দেয়নি দিদি।কৃষকদের এই প্রকল্প নিয়েও রাজনীতি বাংলায়। কৃষি ঋণ মুকুবের সুবিধা ছোট কৃষকরা পায় না।'  এপ্রসঙ্গে বলেছিলেন, '৯০ হাজার কোটি টাকার বিমা সুবিধা কৃষকদের জন্য বরাদ্দ। কিছুদিন আগেই কৃষকদের নাম পাঠিয়েছে রাজ্য সরকার। বাংলায় প্রায় ২৫ লক্ষ কৃষক তৃণমূল সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছেন। বাংলায় প্রায় ২৫ লক্ষ কৃষক তৃণমূল সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছেন। রাজ্যের কৃষক, গরীবদের জন্য ৪ কোটি জনধন অ্যাকাউন্ট খুলেছিল কেন্দ্র। সরাসরি ব্যাঙ্ক অ্য়াকাউন্টে টাকা  দিয়ে  অ্য়াকাউন্ট খুলতে সাহায্য করেছিল কেন্দ্র। এই প্রকল্পের সুবিধা কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের মানুষ পায়নি', এদিন ফের কাঁথিতে এসে আওয়াজ তোলেন মোদী।

আরও পড়ুন, করোনায় ভোট বন্ধের দাবিতে মামলা কলকাতা হাইকোর্টে, কী ব্যবস্থা নিয়েছে কমিশন 

 

অপরদিকে, মোদী এদিন মমতাকে আরও আক্রমণ করে সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্য বলেছেন, ' আপনারা  মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়কে দশবছর কাজ করার সুযোগ দিয়েছেন, যদি কাজের হিসাব চাওয়া হয়, তখন রেগে গিয়ে গালাগালি করছে। দিদি হিংসা- বোম -বন্দুকের ধামাকা দেখাচ্ছে । বাংলাকে বোম বন্দুক ও হিংসা থেকে মুক্তি দিতে হবে, বাংলার শান্তি দরকার ,আর এই কাজ একমাত্র বিজেপি করতে পারবে। এমনকি কটাক্ষের সুরে মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়কে ডাকেন,'দিদি ও দিদি' আর তাতেই উচ্ছসিত হয়ে ওঠে সভায় আগত বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।