'করোনা নিয়ে চিন্তিত নয় রাজ্য সরকার', বুধবার রাজ্যে প্রথমবার নির্বাচনী প্রচারে এসেই মমতাকে আক্রমণ করলেন সোনিয়া পুত্র রাহুল গাঁন্ধী। বস্তুত এদিন তিনি পাশাপাশি মোদীকে নিশানা করেছেন। যদিও এদিন উত্তর দিনাজপুরের গোয়ালপোখরের সভায় এসে মোদীকে নিশানা করতে গিয়ে সংযুক্ত মোর্চার সুর টেনেই আক্রমণ করতে চাইলেন কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি রাহুল গাঁধী। উল্লেখ্য, এদিন গোয়ালপোখর বিধানসভার লোধন হাইস্কুল মাঠে সংযুক্ত মোর্চা আয়োজিত জনসভায় প্রধান বক্তা রাহুল গান্ধী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সম্পাদিকা দীপা দাসমুন্সী,   গোয়ালপোখর,  চাকুলিয়া এবং চোপড়া,  ইসলামপুর বিধানসভার সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থীরা।

আরও পড়ুন, 'আনন্দ বর্মনের মৃত্যুতে নীরব কেন মমতা', দলিত ইস্য়ুতে মুখ্যমন্ত্রীকে প্রশ্ন নাড্ডার 

 

 

তবে রাজ্য়ে যে উন্নয়ন হওয়ার আগে কোভিডে সংক্রমণের মিছিল শুরু হয়েছে, তার জন্য মমতার সরকারকেই এদিন স্পষ্ট দায়ী করলেন রাহুল গাঁন্ধী। তবে শুধু কোভিড নয় আরও একাধিক বিষয়েই এদিন তিনি তৃণমূল সুপ্রিমোকে নিশানা করেছেন। রাহুল গাঁন্ধী এদিন বলেছেন, 'বাংলার জন্য কী করেছেন মমতার সরকার। যদিও একই প্রশ্নের কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন তিনি কেন্দ্রীয় সরকারকেও। মমতাজি বলেন শুধু ভোটের সময় খেলা হবে। এখানে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ময়দানে খেলা হবে। সেটা তো আপনি দেবেন না। এর পরে তিনি বলেছেন পশ্চিমবঙ্গ এমন একটা প্রদেশে যেখানে কাটমানি নিয়ে কাজ নিতে হয়। পাশপাশি মোদীকে নিশানা করে বলেছেন, 'মোদীকে আমি ভয় পাই না।' উল্টে 'মোদী আমাকে ভয় পান' বলে দাবি করেছেন সোনিয়া পুত্র রাহুল গাঁন্ধী।


 আরও পড়ুন, রাসবিহারী কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী বালাকোট হামলার নেপথ্য নায়ক সুব্রত সাহা  

 

 

 
 পঞ্চম দফার ভোটের আগে রাজ্যে প্রথমবার  নির্বাচনী প্রচারে এসেছেন সোনিয়া পুত্র রাহুল গান্ধী। এদিন উত্তর গোয়ালপাড়া ও মাটিগাড়া-নকশালবাড়িতে প্রচার করতে বঙ্গ সফরে এসেছেন রাহুল গান্ধী। মূলত বিধানসভা নির্বাচনে যখন খেলা হবে-র ঝড় তুলছেন মমতা এবং হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে নেমে দিদি ও দিদি বলে খোঁচা দিচ্ছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, তখন রাজ্য়ের তিন কুলে নেই কংগ্রেসের কেন্দ্রীয় নের্তৃত্ব। কেন প্রচারে আসছেন না রাহুল প্রশ্ন উঠতেই দলে ভিতর অস্বস্তি বাড়ে। তারপর   ভোটের মাঝেই রাহুল গান্ধী নিজেই রাজ্যে প্রচারে আসছেন বলে জানিয়েছিলেন।