বারুইপুরের আটঘড়ায় তৃণমূল-বুথ সভাপতির রহস্যমৃত্যু। সূত্রের খবর, 'দুয়ারে সরকার' প্রকল্পের ফর্ম বিক্রি করতে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে যান তৃণমূলের বুথ সভাপতি। রাতে বারংবার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। এরপরে রহস্যজনকভাবে একটি পুকুর তাঁর দেহ উদ্ধার হয়। এই ঘটনায় বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছে তণমূল।

আরও পড়ুন, টিউমার ভেবে অস্ত্রোপচার করতে গিয়ে বেরোল সেদ্ধ ডিম, অবাক আরজি করের চিকিৎসকেরাও

 

সুবীরবাবুর তিনকুলেও কোনও শত্র্ ছিল না, তাহলে কী করে এটা সম্ভব

ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বারুইপুর পুলিশ। ঘটনাস্থলে তদন্তে গিয়েছেন বারুইপুরের আইসি, এসডিপিও এবং অন্য পুলিশ আধিকারিকরা। পরিবারের তরফে অভিযোগ বিজেপি খুন করেছে সুবীর ঘোষকে। এই অভিযোগ অস্বীকার করে বিজেপি জানিয়েছে, এই ঘটনার সঙ্গে কোনও যোগাযোগ নেই বিজেপির। পরিবারের সদস্যদের কথায়, সুবীরবাবুর তিনকুলেও কোনও শত্র্ ছিল না। জনদরদী ছিলেন-সকলের জন্য় কাজ করতেন।

আরও পড়ুন, শ্রী শ্রী হরিচাঁদ ঠাকুরের জন্মদিনে রাজ্যে 'ছুটি', নাড্ডার সফরের দিনেই ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর


ফর্ম আর জুতো  থেকে ৭০ কিমি দূরে ছিল সুবীর ঘোষের দেহ

এদিকে, তৃণমূল নের্তৃত্বের দাবি স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের ফর্ম আর জুতো যেখানে পড়ে ছিল তার থেকে ৬০ থেকে ৭০ কিমি দূরে ছিল সুবীর ঘোষের দেহ। এ থেকেই আমাদের সন্দেহ ঘনীভূত হয়। ঘটনাস্থল দেখে আমরা নিশ্চিত খুন করা হয়েছে বুথ সভাপতি সুবীর ঘোষকে। আমাদের অনুমান, এই খুনের ঘটনায় এক বিজেপি সমর্থক জড়িত।