'পচা সিপিএমের হার্মাদরাই এখন বিজেপির ওস্তাদ' মোদীর পুরুলিয়া সফরের দিনেই গড়বেতা থেকে হুইলচেয়ারে বসে হুঙ্কার দিলেন মমতা। ইস্তাহার প্রকাশের পরেও এদিন গড়বেতার মঞ্চ থেকে মমতা মেয়েদের হাত খরচের জন্য একটি নতুন স্কিম ঘোষণা করলেন মমতা।

 

এদিন তিনি বলেছেন, 'তপশীলি জাতি-উপজাতি সম্প্রদায়ভুক্তদের  ১০০০ এবং জেনারেল মেয়েদের হাতখরচের জন্য প্রতি মাসে ৫০০ টাকা দেওয়া হবে।' তিনি এদিন ইস্তাহারের কিছু প্রকল্প ফের মনে করান গড়বেতাবাসীকে। মমতা বলেন,  ছাত্র-যুবদের জন্য সুলভ ক্রেডিট কার্ডের ব্যবস্থা আনা হয়েছে। ১০ লক্ষ টাকা ঋণ পাবেন, মাত্র ৪ শতাংশ সুদে। জামিনদার হিসেবে কাউকে থাকতে হবে না। মা-বাবার উপর নির্ভর করতে হবে না'। এদিনও নির্বাচনের প্রচারে এসে মমতা জ্বালানীর মূল্য বৃদ্ধি ইস্যুতে বললেন, দুদিনের উজালা গ্যাস দুনীর্তিতে ভরিয়ে মোদীর প্রকল্প হাওয়া। লুটেরা বাহিনীকে রুখতে হবে। আমরা অনেক লড়াই করেছি, তাই ভয় দেখাবেন না। জোড়া ফুলকে ভোট দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে সর্বমঙ্গলা দেবীর উদ্দেশ্যে মন্ত্রপাঠ করেলেন  মমতা।


অপরদিকে, এদিন মমতা বলেন,'এটা দিল্লির নির্বাচন নয়, নরেন্দ্র মোদির নির্বাচন নয়। বিজেপির নির্বাচন নয়, এটা বাংলার নির্বাচন। এই নির্বাচনে আপনারা যদি চান আমি থাকি, তাহলে আমার প্রার্থীদের ভোট দিলে আমি সরকার গঠন করতে পারব। তাই আমার পক্ষ থেকে এরা ভোটে দাঁড়িয়েছে। আপনারা দয়া করে এদেরকে ভোটটা দেবেন। এই এলাকায় একসময় মাওবাদী সন্ত্রাসে পর্যদুস্ত হয়ে গিয়েছিল। তারপর থেকে আমাদের সরকার ক্ষমতায় আসে। আমরা শান্তি ফিরিয়ে এনেছি। জঙ্গলমহলে আগে বছরে ৩০০ বেশি মানুষ খুন হত। এখন এসব হয় না। গড়বেতা আলু চাষের প্রাণকেন্দ্র।এই আলুচাষিরা যখন সমস্যায় পড়ে তখন তাদের সম্পূর্ণভাবে আমি সাহায্য করে দিই।'