'বাংলার সঙ্গে আমার আত্মার যোগ', ভোটের একেবারে দোরগড়ায় প্রচারের শেষবেলায় রাজ্যে যোগী। এদিন নামখানার জনসভা থেকে নির্বাচনী প্রচারেই মমতাকে তোপ দাগলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। বাংলায় বিজেপিকে কেন ভোট দেবেন না, এই প্রশ্ন করে-যোগীরাজ্যে ধর্ষণ ছাড়া আরও কিছু হয় না, মহিলাদের নিরাপত্তা দিতে পারেনি সেখানে বিজেপি শাসিত সরকার-এ উদাহরণ হামেশাই দেয় তৃণমূল সুপ্রিমো সহ অনুগ্রামী নেতা-মন্ত্রীরা। তবে এদিন শেষবেলায় রাজ্যে এসে কার্যত অমিত শাহ-র পাশাপাশি যোগীও আশ মিটিয়ে মমতাকে নিশানা করলেন। 

আরও পড়ুন, 'গেরুয়া বসনকেও ভয় পাচ্ছেন দিদি', পুরুলিয়ায় 'শিল্প' ইস্যুতে বাম-তৃণমূলকে নিশানা শাহ-র 

 

 

এদিন যোগী বলেছেন, 'তৃণমূলের আমলে রাজ্যে গুন্ডাগিরি ছাড়া কিছুই হয়নি। আমফানের টাকা লুঠ করেছে তৃণমূল।এর আগে বাংলার মাথাপিছু আয় ছিল পুরো দেশের মাথাপিছু আয়ের চেয়েও বেশি। এখন, কংগ্রেস, সিপিআইএম, তৃণমূল শিল্প ধ্বংস করেছে এবং তরুণদের বেকার করেছে। আজ বাংলায় কোনও শিল্প নেই। কেবল তৃণমূলের দুর্নীতির শিল্প বিরাজ করছে।' উল্লেখ্য, এদিন তিনি সভা করতে আসার আগে টুইটারে লিখেছেন, বিল্পবের ধারক-বাহক বাংলা। আজ পরিবারতন্ত্র, স্বৈরাচার এবং দুর্নীতি থেকে মুক্তি চাইছে বাংলা। বিজেপি এই অনুভবের সঙ্গে রয়েছে। এই আবেগই আরও একবার বাংলার ভাই-বোনেদের কাছে পৌছে দিচ্ছে।'

 

 

আরও দেখুন, Election Live Update-রাজ্য়ে নির্বাচনী প্রচারের ঝড় তুললেন শাহ-পাল্টা মমতা, ওদিকে শেষবেলায় সভায় রাজনাথ-যোগীও 

 


অপরদিকে, এদিন যোগীর প্রথম সভাটি ছিল সাগরে। সেখান থেকে তিনি পৌছে যান চন্দ্রকোনায়। তবে সভা শেষ করবেন রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ জায়গা দিয়েই এদিন তিনি। কারণ যোগীর এদিনের শেষ সভা নন্দীগ্রাম। এদিকে  রাজ্যে প্রথম দফা ভোটের আগে বৃহস্পতিবারই প্রচারের শেষ দিন। এমন একটা দিনে  বঙ্গে নির্বাচনী প্রচারে যোগী আদিত্যনাথের উপরেই বেশি ভরসা করেছে বিজেপি। রাজনৈতিক মহলের মতে, হিন্দু ভোটকে একজায়গায় করানোর জন্য  আদিত্যনাথকে নন্দীগ্রামের নিয়ে যাওয়ার সবচেয়ে বড় উদ্দেশ্য। 

 

 

 

;