ফের উত্তপ্ত ভাটপাড়া, কাঁকিনাড়া এলাকা। তৃণমূলের সঙ্গে বিজেপি-র সংঘর্ষের জেরে এলাকায় প্রবল উত্তেজনা। সংঘর্ষের মাঝে পড়ে মাথা ফাটল ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের। বিজেপি সাংসদের অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে পুলিশের মারে মাথা ফেটেছে তাঁর। 

শ্যামনগরে বিজেপি-র একটি পার্টি অফিসের দখলকে কেন্দ্র করে এ দিন সকাল থেকেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে স্থানীয় পানবাজার মোড়। খবর পেয়ে সেখানে যান বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। সেখানেই তাঁর গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। ক্রমে এই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে কাঁকিনাড়া এলাকায়। বিজেপি এবং তৃণমূল সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। অর্জুন সিংয়ের নেতৃত্বে রাস্তা অবরোধ করে বিজেপি। জানা গিয়েছে, অবরোধ তোলার জন্য অর্জুন সিংকে অনুরোধ করেন মনোজ ভার্মা। কিন্তু তা শোনেননি বিজেপি সমর্থকরা। এর পরেই লাঠিচার্জ শুরু করে পুলিশ। পাল্টা ইটবৃষ্টি শুরু করে বিজেপি সমর্থকরা। এর মাঝে পড়ে যান ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ। মাথা ফাটে অর্জুনের। তাঁকে দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। 

অর্জুন সিংয়ের অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনার মনোজ ভার্মার লাঠির আঘাতে তাঁর মাথা ফেটেছে। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল নেতা জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। অর্জুন সিংয়ের দাবি, তাঁর মাথায় দশ থেকে বারোটি সেলাই পড়েছে। 

জানা গিয়েছে, ব্যারাকপুরের সাংসদের আঘাত যথেষ্টই গুরুতর। ভাটপাড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতাল থেকে তাঁকে কলকাতার একটি নার্সিং হোমে নিয়ে আসা হচ্ছে।