শনিবার মাঝরাতে আঘাত হানতে চলেছে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস, শনিবার রাতে দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার সাগর ও বাংলাদেশের খেপুপাড়ার মাঝে আছড়ে পড়বে বুলবুল। এর ফলে মূলত ক্ষতিগ্রস্ত হবে সুন্দরবন এলাকা।

আলিপুর আবহাওয়া দফতরের অধিকর্তা গণেশকুমার দাস জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগরের উপরে অবস্থান করছে বুলবুল। আপাতত শনিবার পর্যন্ত উত্তর দিকেই এগোতে থাকবে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। তার পর তা বাঁক নিয়ে উত্তর পূর্ব দিকে এগোতে থাকবে। 

শনিবার যখন বুলবুল স্থলভাগে আঘাত হানবে, তখন তার গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় একশো কুড়ি থেকে একশো পয়ত্রিশ কিলোমিটার। সবচেয়ে বেশি ঝড় হবে দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা এবং সুন্দরবনে। কলকাতাতেও সর্বোচ্চ সত্তর কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। শুক্রবারও দুই চব্বিশ পরগণায় কয়েক জায়গায় ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর। কলকাতাতে হাল্কা বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। তবে শনিবার দুই চব্বিশ পরগণাতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হবে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন আবহবিদরা। কলকাতাতেও ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। 

আরও পড়ুন- ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল, জেনে নিন সুরক্ষিত থাকার উপায়গুলি

আরও পড়ুন- বুলবুলের প্রভাবে বৃষ্টি শুরু দিঘায় , ফেরান হচ্ছে পর্যটকদের

ঘূর্ণিঝড়ের জেরে সমুদ্র উত্তাল হয়ে উঠবে বলে সতর্ক করে দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। দুই চব্বিশ পরগণা এবং সুন্দরবনে এক থেকে দুই মিটার পর্যন্ত জলস্ফীতির আশঙ্কা রয়েছে। পূর্ব মেদিনীপুরে ০.৫ থেকে ১ মিটার পর্যন্ত জলস্ফীতি ঘটতে পারে। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা জারি করার পাশাপাশি ৯ এবং ১০ তারিখ ফেরি চলাচলও বন্ধ রাখার পরামর্শ দিয়েছে আবহাওয়া দফতর।