আশিস মণ্ডল, বীরভূম-অনুব্রত মণ্ডলের খাসতালুকে দিলীপ ঘোষের সভা ঘিরে উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি হল বীরভূমে। বিজেপি কর্মীদের ওই সভায় যেতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বোলপুর ও সাঁইথিয়া এলাকায় বিজেপি কর্মীদের বাস ও মোটর বাইকে ভাঙচুর চালানো হয় বলে অভিযোগ। শুধু তাই নয়, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের গুলিতে এক বিজেপি কর্মী গুরুতর জখম হন।

আরও পড়ুন-লোকসভায় বাঁকুড়ায় খারাপ ফল তৃণমূলের, পুরুদ্ধারের চেষ্টায় উন্নয়নে আরও জোর মুখ্যমন্ত্রীর

 

জাানগেছে, বুধবার দুপুরে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের সভা সিউড়ি জেলা স্কুল মাঠে। সেই মতো দিলীপের সভায় যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন বোলপুর ও সাঁইথিয়া এলাকার বিজেপি কর্মীরা। বোলপুরের বাহিরী ও পাঁচসোয়া গ্রামের বিজেপি কর্মীরা সিউড়ির সভার যাওয়ার আগে শিমুলিয়া মোড়ে জড়ো হয়। সেখান থেকে বাস ও মোটর বাইকে যাওয়ার কথা ছিল তাঁদের। সেই সময় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা অতর্কিত হামলা চালায় বলে অভিযোগ। লাঠি নিয়ে বাস ও মোটর বাইকে ব্য়াপক ভাঙচুর চালানো হয়। কিছুক্ষণের মধ্যেই বিজেপি কর্মীরা প্রতিরোধ গড়ে তুললে পিছু হটে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। একইভাবে সাঁইথিয়ার ভ্রমরকোল অঞ্চলে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের সভায় যেতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন-কলকাতার মেয়র-প্রশাসক, রাজ্যের মন্ত্রী, জেনে নেওয়া যাক ফিরহাদের সম্পত্তির পরিমাণ

অন্যদিকে, অভিক মণ্ডল নামে একজন বিজেপি কর্মী নিজের বাইকে করে সিঙ্গি থেকে যাচ্ছিলেন সিউড়ির দিকে। তাঁর বাইকে আরও একজন ছিলেন। বাইক শিমুলিয়ার কাছে পৌঁছলে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাঁদের লক্ষ করে গুলি চালায় বলে অভিযোগ। অভিক মণ্ডলের পাঁজরে গুলি লাগে। তাঁকে গুরুতর অবস্থায় বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সিউড়িতে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের সভায় যেতে বিজেপি কর্মীদের বিভিন্ন জায়গায় বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশ বাহিনী।