Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Viral Photo: সাতসকালে মালবাজারের বাড়িতে হানা মাঝবয়সী ভাল্লুকের, ঘটনাস্থলে হাজির বন দফতর

বৃহস্পতিবার  সাতসকালে মাল পৌরসভার ১১ নং ওয়ার্ডে হানা দিল ভাল্লুক । ঘটনাস্থলে হাজির বন দফতর, অনেকেই আবার হিংস্র এই বিশালাকার জন্তুকে চাক্ষুস দেখার জন্য পাগল।

Forest Department has come to rescue the bear in Mal bazar RTB
Author
Kolkata, First Published Dec 9, 2021, 12:33 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

বৃহস্পতিবার  সাতসকালে মাল পৌরসভার ১১ নং ওয়ার্ডে হানা দিল ভাল্লুক (Bear) । এদিন সকালে মালবাজারের বাটাইগোলা এলাকায় থাকা একটি বাড়িতে  মাঝ বয়সী ভাল্লুককে দেখতে পান ভবনের কর্মীরা। সঙ্গে সঙ্গে খবর যায় বনদপ্তরে (Forest Department) ।

বৃহস্পতিবার সবে তখন শীতের আমেজে ঘুম ভেঙেছে মালবাজারবাসীর। আর সাতসকালেই অঘটনের খবর। এই মুহূর্তে সেখানে উপস্থিত হয়েছে বনকর্মীরা। ডুয়ার্সের মালবাজারে পুরসভার বাটাইগোল বাজারে এক গৃহস্থ্যের বাড়িতে দেখতে পাওয়া যায় ওই ভাল্লুকটিকে। এই ঘটনায় ছড়িয়ে পড়েছে আতঙ্ক। অনেকেই আবার হিংস্র এই বিশালাকার জন্তুকে চাক্ষুস দেখার জন্য পাগল। উৎসাহী জনতাকে হঠাতে পুলিশ ও বনকর্মীদের হিমসিম খেতে হচ্ছে। এদিকে সবে বুধবারেই সাতসকালে জলপাইগুড়িতে বনদপ্তরের তিস্তা উদ্যানে ভাল্লুকের  পায়ের ছাপ দেখা গিয়েছে। সিসিটিভি ফুটেজে ফুটে উঠেছে আবছা ছবি। কোনও ঝুঁকি না নিয়েই তল্লাশি শুরু করে দেয় বন দফতর। মুহূর্তেই বন্ধ করে দেওয়া হয় জলপাইগুড়ি জেলা সরকারি বইমেলা। এদিকে ২৪ ঘন্টা যেতে না যেতেই ফের ভাল্লুকের দেখা মিলেছে জলপাইগুড়ি জেলায়।

আরও পড়ুন, Sayantika Banerjee: সাতসকালে ১২ চাকা গাড়ির ধাক্কা, দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেলেন সায়ন্তিকা

প্রসঙ্গত, জলপাইগুড়িতে বনদপ্তরের তিস্তা উদ্যানে ভাল্লুকের পায়ের ছাপ দেখে আতঙ্ক তৈরি হয়। বুধবার সকাল ৭ টা ৭ মিনিটে সিসিটিভি ফুটেজে আবছা ছবিতে কিছু একটা জন্তু তিস্তা উদ্যানে ঘোরাফেরা করছে বলে দেখা গিয়েছে। উদ্যানের ভেতর পায়ের ছাপ ও জন্তুটির আকার আকৃতি দেখে ভাল্লুক বলেই মনে হচ্ছে।বন্যপ্রান বিভাগ, জলপাইগুড়ি বনবিভাগকে সঙ্গে নিয়ে কোনও ঝুঁকি না নিয়েই তল্লাশি শুরু করেছে অঞ্জন গুহ ডি এফ ও উদ্যান ও কানন বিভাগ উত্তরবঙ্গ।কিন্তু অনেক খোজাখুজির পরেও ভাল্লুক দেখা যায়নি।সিসিটিভি ফুটেজে ভাল্লুক পাওয়া গেছে। কিন্তু সেই ভাল্লুক কোথায় কেউ জানে না। শহরে কোথাও লুকিয়ে থাকতে পারে। এই আতঙ্কে জলপাইগুড়ি জেলা সরকারি বইমেলা সন্ধ্যায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। জন সাধারণের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে তাই কোনও রকম ঝুকি নিতে রাজি জলপাইগুলি প্রশাসন।

আরও পড়ুন, Coronavirus: ফের ঊর্ধ্বমুখী রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণ, কমেছে মৃতের সংখ্যা

উত্তরবঙ্গে সম্প্রতি ভাল্লুক না হলেও দাঁতালের তাণ্ডবে ভয়াবহভাবে আক্রান্ত সাধারণ মানুষ। হাতির উপদ্রব ক্রমেই বাড়ছে উত্তরবঙ্গে একাধিক জেলায়। নভেম্বর মাসেই  গরু বাঁধতে গিয়ে উত্তরবঙ্গের   নকশালবাড়ির মেরিভিউ চা বাগানে হাতির  হানায় মৃত্যু হয় এক ব্যক্তির। যদিও তারপরেও বন দপ্তরের তরফে হাতির হানা ঠেকাতে বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়নি বলে দাবি স্থানীয়দের। সহজ কথায় বর্তমানে নকশালবাড়ির বিভিন্ন স্থানে হাতির তান্ডবে অতিষ্ট সাধারণ মানুষ। যা জেরে এলাকা ছেড়েও পালাচ্ছে বহু মানুষ।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios