আজ সকালে বড় দুর্ঘটনা এড়ানো গেল বর্ধমানে। বর্ধমান স্টেশনের ৪ নম্বর প্ল্যাটফর্মে ঢোকার মুখেই লাইনচ্য়ুত হয় আপ হাওড়া রাধিকাপুর এক্সপ্রেস। সকাল ১০টা ৪৫ নাগাদ দুর্ঘটনাটি ঘটে। যদিও গাড়ির গতিবেগ কম থাকায় কোনও বড় দুর্ঘটনা ঘটেনি। 

আরও পড়ুন- BJP-র পুরসভা ঘেরাও অভিযান মোকাবিলায় কড়া নিরাপত্তা, শহরে ৩ হাজার পুলিশ মোতায়েন

সকাল ১০টা ৪৫ নাগাদ গতিবেগ কমিয়ে বর্ধমানে ঢুকছিল ট্রেনটি। হঠাৎই বিকট আওয়াজ হয়। একজন যাত্রী জানিয়েছেন, "বিকট আওয়াজের পর জোরে ঝাঁকুনি হয়। মনে হচ্ছিল বড় কিছুর সঙ্গে ধাক্কা লাগল। সঙ্গে সঙ্গে ট্রেনটি থেমে যায়। এরপর নেমে দেখি ট্রেনটি লাইনচ্যুত হয়েছে।"

 

তবে ট্রেনের গতিবেগ কম থাকায় বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া গিয়েছে বলে মনে করছেন যাত্রীরা। এই ঘটনায় কেউ আহত হননি বলে জানা গিয়েছে। ট্রেনের প্রথম বগি যা গার্ড ও লাগেজের জন্য সংরক্ষিত ছিল সেই বগির চারটি চাকা লাইনচ্যুত হয়ে যায়। রেলের তরফে বগিটি লাইনে তোলার কাজ শুরু হয়েছে। ট্রেনটিকে গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়ার জন্য অন্য একটি ইঞ্জিন নিয়ে আসা হয়েছে। তবে কীভাবে দুর্ঘটনা ঘটল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এদিকে এই দুর্ঘটনার জেরে এই মুহূর্তে ৪ নম্বর প্ল্যাটফর্মে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। বাকি প্ল্যাটফর্ম থেকে স্বাভাবিক নিয়মেই ট্রেন চলছে বলে জানা গিয়েছে। 

আরও পড়ুন- 'রিজাইন দিলীপ ঘোষ', BJP প্রার্থী শ্রাবন্তী ইস্যুতে বিস্ফোরক তথাগত

 

এদিকে, করোনা মোকাবিলায় রাজ্যে এখনও পর্যন্ত লোকাল ট্রেন পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। কিছু স্টাফ স্পেশাল ট্রেন চালানো হচ্ছে। যদিও সেই ট্রেনে উঠতে পারেন না সবাই। রেলের নিজস্ব কর্মী, ব্যাঙ্ক কর্মী, স্বাস্থ্য কর্মী ও জরুরিত পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত কর্মীরা এই ট্রেনে চড়তে পারেন। তবে এই ট্রেনে চড়ার জন্য় আইডি বাধ্যতামূলক। যদিও এই ট্রেনেও ধীরে ধীরে ভিড় বাড়ছে। ফলে ভিড় কমাতে ১৮টি স্পেশাল দূরপাল্লার ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে পূর্ব রেল। আর তারই মধ্যে লাইনচ্যুত হয়ে গেল আপ হাওড়া রাধিকাপুর এক্সপ্রেস।