ঘূর্ণিঝড় যশ (Cyclone Yaas) নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বৈঠকে উপস্থিত হলেও অংশ নেবেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মাত্র ১৫ মিনিটের জন্য তিনি বৈঠক থাকবেন বলেও নবান্ন সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গেছে। সূত্রের খবর প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে রাজ্যের ক্ষয়ক্ষতির হিসেব দিতেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কলাইকুন্ডায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বৈঠকে উপস্থিত হবে। আর সেখানেই তিনি আলাদাভাবে দেখা করে প্রধানমন্ত্রীর হাতে রিপোর্ট তুলে দেবেন। 

আগে থেকেই প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। বিরোধী দলনেতা তথা রাজ্যের বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারীর উপস্থিতি তিনি মেনে নিতে চাননি। বৃহস্পতিবার রাতেই তা দিল্লিতে জানিয়েছিল নবান্ন। তবে তার পরিপ্রেক্ষিতে তেমন কোনও প্রতিক্রিয়া জানানি নয়া দিল্লি।প্রথম থেকেই শুভেন্দু অধিকারীর উপস্থিতি নিয়ে আপত্তি জানিয়েছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও এদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আকাশপথে বাংলা ও ওড়িশার ঝড় বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শনের পর কলাইকুন্ডায় এসে পৌঁছানোর কিছুক্ষণ পরেই সেখানে উপস্থিত হন শুভেন্দু অধিকারী। এদিন কলাইকুন্ডা বিমানঘাঁটিতে তাঁকে স্বাগত জানিয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। 

এদিন ঘূর্ণিঝ়ড় বিধ্বস্ত ৬টি বিধানসভা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর সঙ্গে রয়েছেন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রাকৃতিক দুর্যোগে বিপর্যস্ত সাগরদ্বীপ পরিদর্শনের সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কলাইকুন্ডায় প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক নিয়ে জিজ্ঞাসা করা হয়। তখনই তিনি জানিয়ে দিয়েছিলেন বৈঠকে তিনি উপস্থিত থাকবে না। তবে রাজ্যের ক্ষয়ক্ষতির হিসেব তিনি পাঠিয়ে দেবেন নরেন্দ্র মোদীকে। তাঁর সঙ্গে প্রাকৃতিক দুর্যোগ বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শন করছেন মুখ্যমন্ত্রী আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়।