করোনা মোকাবেলায় রাজ্যের ত্রাণ তহবিলে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল স্কুল ছাত্রী। ব্যাঙ্কের জিরো ব্যালান্স অ্য়াকাউন্টে মোদী সরকারের টাকা ঢুকতেই দান করে দিল মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে।

লকডাউনে পরিযায়ী শ্রমিকদের তিনি প্রাণের মানুষ, দুবেলা পেট ভরে তাঁদেরকে খাওয়াচ্ছেন পাটুলির দাশু সাহা...

সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছেন, এই কঠিন পরিস্থিতির মোকাবিলায় সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। এই সময় কেউ ৫টাকা দান করতে চাইলে তা সসম্মানে গ্রহণ করবে রাজ্য় সরকার। তাঁর এই বক্তব্যে অনুপ্রাণিত হয় পুরুলিয়ার ঝালদা পৌরসভার ১১ নাম্বার ওয়ার্ডের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী খুশি সূত্রধর। সম্প্রতি নিজের অ্য়াকাউন্টের ৫০০টাকা মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করে খুশি।

এই মুহূর্তে কলকাতার সেরা ১০ খবর,যা আপনাকে ভাবাবেই.

কয়েকদিন থেকেই  কেন্দ্রীয় সরকারের জিরো ব্যালান্স অ্য়াকাউন্টে ৫০০ টাকা ঢুকতে শুরু করেছে। আর এই টাকা আসে অস্টম শ্রেণির ছাত্রী খুশি সূত্রধরের অ্য়াকাউন্টেও।তাই সময় নষ্ট না করে সেই টাকা রাজ্যের করোনা মোকাবেলায় ওয়েস্ট বেঙ্গল এমার্জেন্সি রিলিফ ফান্ডে জমা করে দিল খুশি। সে জানিয়েছে, আমি একটু হলেও রাজ্যের পশে দাঁড়াতে পেরে খুশি।

৫০০ টাকা করে ঢুকছে অ্যাকাউন্টে, মোদীকে নমস্তে জানালো কলকাতা..

মুখ্যমন্ত্রী যেদিন টিভিতে সাহায্যের ঘোষণাটি করেছিলেন,সেদিন থেকেই ভাবছিলাম এই সময় কিছু করতে পারলে ভালো হতো |তাই যখন দেখি অ্য়াকাউন্টে টাকা ঢুকেছে আর দেরি না করে পাঠিয়ে দিলাম রাজ্যের করোনা মোকাবিলার তহবিলে | আমি চাই এরকম সকলে এগিয়ে আসুক সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিক।এক সাথে করোনার  মোকাবিলা করি |