উপনির্বাচন শুরু হতেই উত্তেজনা ছড়াল নদিয়ার করিমপুরে। সেখানে বিজেপি প্রার্থী জয়প্রকাশ মজুমদারের ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে উপস্থিতি ঘিরেই উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। জানা গিয়েছে এ দিন সকালে করিমপুরের থানারপাড়ায় একটি বুথে জয়প্রকাশ মজুমদার ঢুকতে গেলে তাঁকে বাধা দেন স্থানীয় তৃণমূল কর্মী- সমর্থকরা। তৃণমূল কর্মীদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন বিজেপি প্রার্থী। নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আধা সেনার হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। অন্যদিকে নদিয়ারই পিপুলখোলার একটি বুথে বিজেপি এজেন্টকে অপহরণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ। এই অভিযোগকে কেন্দ্র করেই তৃণমূল এবং বিজেপি সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়ায়। বিজেপি প্রার্থী জয়প্রকাশ মজুমদার সেখানে পৌঁছলে তাঁকে আধা সেনা বুথ থেকে বের করে দেয় বলে অভিযোগ। 

রাজ্য়ের তিনটি বিধানসভা কেন্দ্রে চলছে উপনির্বাচন। তার মধ্যে রয়েছে নদিয়ার করিমপুর, পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়্গপুর সদর এবং উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জে। কালিয়াগঞ্জ এবং খড়্গপুর সদরে সকাল ন'টা পর্যন্ত সেভাবে কোনও অশান্তির খবর পাওয়া যায়নি। তবে করিমপুরের ঘটনায় রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

বিজেপি প্রার্থী জয়প্রকাশ মজুমদারের অভিযোগ, তাঁর এজেন্টদের বিভিন্ন বুথ থেকে বের করে দেওয়া হচ্ছে। যেখান থেকেই এমন অভিযোগ পেয়েছেন, সেখানেই ছুটে গিয়েছেন বিজেপি প্রার্থী। পাল্টা তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা অভিযোগ করেন, বুথে গিয়ে সাধারণ মানুষকে ভয় দেখাচ্ছেন বিজেপি প্রার্থী। বিজেপি তরফে অবশ্য কমিশনে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। 

তিন কেন্দ্রের বিধানসভা নির্বাচনে এবার ত্রিমুখী লড়াই। তৃণমূল, বিজেপি-র বিরুদ্ধে লড়ছেন বাম কংগ্রেসের জোট প্রার্থী। উপনির্বাচনের আসন ভাগাভাগির রাস্তায় হেঁটেছে বাম এবং কংগ্রেস। বিজেপি প্রার্থী জয়প্রকাশ মজুমদার অভিনয় করছেন বলে কটাক্ষ করেছেন তৃণমূল প্রার্থী বিমলেন্দু সিংহ রায়।

আগামী বৃহস্পতিবার উপনির্বাচনের ফল ঘোষণা হবে। লোকসভা নির্বাচনের পরে রাজ্যের শাসক দল নিজেদের হারানো জমি ফিরে পেল, নাকি বিধানসভায় বিরোধীদের শক্তি আরও কিছুটা বাড়ল তা সেদিনই জানা যাবে।