Asianet News BanglaAsianet News Bangla

TMC Malda: সরকারি অফিসে আগ্নেয়াস্ত্র হাতে তৃণমূল সভানেত্রীর ছবি ভাইরাল, অস্বস্তিতে ঘাসফুল শিবির

অফিসের মধ্যে আগ্নেয়াস্ত্র হাতে পুরাতন মালদা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি তথা মালদহ জেলা মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী মৃণালিনী মন্ডল মাইতির ছবি ভাইরাল।   'এটাই ওদের কালচার', অভিযোগ বিজেপির।

 

TMC Leader Mrinalini Mandal Maiti allegedly spottet with a firearm in Malda office RTB
Author
Kolkata, First Published Dec 7, 2021, 10:26 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

মালদহে (Malda)অফিসের মধ্যে আগ্নেয়াস্ত্র হাতে তৃণমূল নেত্রীর (TMC Leader) ছবি ভাইরাল। অফিসের মধ্যে আগ্নেয়াস্ত্র হাতে পুরাতন মালদা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি তথা মালদহ জেলা মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী মৃণালিনী মন্ডল মাইতির ছবি প্রকাশ্যে আসতেই উত্তপ্ত রাজ্য রাজনীতি। ইতিমধ্য়েই ছবিটি ভাইরাল হয়েছে। পুরভোটের আগে জোর অস্বস্তিতে তৃণমূল কংগ্রেস। 'গত ১১ বছরে  রাজ্যের পাশাপাশি মালদহ জেলাকেও বারুদের স্তূপে উপর দাঁড় করিয়ে দিয়েছে শাসক দল (WB Govt),  ওদের অফিসে এটাই কালচার', অভিযোগ বিজেপির (BJP)।

জেলার প্রথম সারির নেত্রীর আগ্নেয়াস্ত্র হাতে ছবি ভাইরাল হওযায় অস্বস্তিতে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী বলেন ঘটনার তদন্ত করে দেখবে পুলিশ।  পুরাতন মালদহ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি তথা মালদহ মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী মৃণালিনী মন্ডল মাইতি বারবার জড়িয়েছেন বিতর্কে। বিডিও অফিসের মধ্যে সরকারি কর্মীকে মারধর থেকে শুরু করে একাধিক অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে। এবারে সরকারি অফিসের মধ্যেই আগ্নেয়াস্ত্র হাতে তার ছবি ভাইরাল হওয়ার ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে জেলা জুড়ে। প্রসঙ্গত, দোরগড়ায় এখন পুরভোট। রাজ্যে সাজোসাজো রব। আর তার মাঝেই এহেন ঘটনায় সরগরম রাজ্য-রাজনীতি। একুশের ভোটের আগেও রাজ্যে আইন-শৃঙ্খলা এবং বারুদ-আগেয়াস্ত্রের অভিযোগ তুলেছিলেন রাজ্যপাল। এরপর সম্প্রতি নোদাখালিতে অবৈধ বাজি তৈরি কারখানায় বিস্ফোরণকাণ্ডেও বারুদের স্থূপের উপরে বসে রয়েছে রাজ্য বলে তোপ দেগেছেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। আর এবার পুরভোটে বিজেপির দাবি অনুযায়ী কেন্দ্রীয় বাহিনীর টহল ইস্যুতে আরও একধাপ এগিয়ে এই ঘটনা আরও উসকে দিল । 

আরও পড়ুন, Municipal Election 2021: 'রাজ্যপালের জন্যই হাওড়া পুরভোটে দেরি', তোপ বিমানের, পাল্টা জবাব ধনখড়ের

জেলা বিজেপি সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মন্ডল বলেন, '১১ বছরে গোটা রাজ্যের পাশাপাশি মালদা কেউ বারুদের স্তূপে দাঁড় করিয়েছে শাসক দল। ওদের অফিসে এটাই কালচার। পিস্তল আছে, খুঁজলে বোম্ব পাওয়া যাবে, খুঁজলে একে ৪৭ পাওয়া যেতে পারে। এটা ওদের কালচার হয়ে দাঁড়িয়েছে। চাকরি চলে যাবে ভয়ে পুলিশ প্রশাসন চুপ চাপ আছে', কটাক্ষ বিজেপি জেলা সভাপতির। এই বিষয়ে রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী বলেন, 'সরকারি চেয়ারে বসে এই ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে খেলা করাটা সঠিক নয়। আগ্নেয়াস্ত্রটি খেলনা না আসল সেটা পুলিশ অনুসন্ধান করে বলবে। তবে আমি যেটা ছবিতে দেখলাম তাতে মনে হচ্ছে এটা অরিজিনাল আগ্নেয়াস্ত্র। জনগণের কাছে এর ফলে ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। যদিও এই বিষয়ে বারবার মৃণালিনী মন্ডল মাইতি কে ফোন করা হলেও তার কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios