প্রত্য়েকেই যেকোনও শুভ কাজে বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় ঠাকুর ঘরে পার্থনা করেন। আর ঠাকুর ঘরের পজিটিভ শক্তি, প্রত্য়েকেরই আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে দেয়। তাই আপনার বাড়ির আরাদ্ধ দেবতার ঠাকুর ঘর কোথায় তৈরি করবেন সেটা ভেবে দেখা উচিত। তা না হলে, ভূল জায়গায় বাড়ির ঠাকুর ঘর তৈরি হলে আপনার পরিবারের অমঙ্গল হবে। তাই বাস্তুতন্ত্রের নিয়ম অনুযায়ি,  আপনার বাড়ির মন্দিরের কোথায় করবেন, জেনে নিন-

১। বাড়ির ঠাকুর ঘর সবসময় পূর্ব দিকে থাকা উচিত। কারন পূর্ব দিকে যেহেতু সূর্যদয় হয়, তাই পূর্ব দিককে শুভ শক্তির আধার বলে ধরা হয়।

২। বাথরুম বা রান্নাঘরের কাছাকাছি কখনই আপনার বাড়ির আরাদ্ধ দেবতার ঠাকুর ঘর তৈরি করবেন না। এতে  আপনার পরিবারের অমঙ্গল হবে।

৩। বাড়ির ঠাকুর ঘরের জানালা-দরজা সবসময়  পূর্ব দিকে বা উত্তর-পূর্ব দিকে বানানো উচিত।

৪। ধাতব কোনও জিনিস দিয়ে বাড়ির ঠাকুর ঘর তৈরি করবেন না। বাড়ির ঠাকুর ঘর বা মন্দির বানানোর জন্য় মার্বেল বা অন্য় যেকোনও পাথর ব্য়বহার করতে পারেন। 

৫। ঠাকুর ঘরে, ঠাকুরের মুখ সবসময় পূর্ব বা পশ্চিম দিকে মুখ করে রাখুন।

৬। আপনার বাড়ির ঠাকুর ঘরের রঙ সাদা, হলুদ কিংবা হালকা নীল হলে ভাল হবে।


আশা করা যায়, বাস্তুর এই নিয়ম মেনে গুলি মেনে চললেই আপনার জীবন সুন্দর হয়ে উঠবে।