২০১৭ সালে জিএসটি চালু করার ফলে বন্ধ হয়েগিয়েছিল সার্ভিস চার্জ। যার ফলে দাম কমেছিল হল টিকিটের। কিন্তু এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের পর থেকেই সমস্যার সন্মুখীন হতে হয় সিনেমা হল কর্তৃপক্ষদের। বিগত এক বছর ধরে সার্ভিস চার্জ চালু করার জন্য নানা ক্ষেত্রে আবেদন করার সত্ত্বেও এখনও কোনও সঠিক উত্তর না মেলার এবার সাংবাদিক বৈঠক করে নিজেদের এই সমস্যা তুলেধরলেন টালিগঞ্জ আর্টিস্ট ফোরাম। 

আরও পড়ুনঃ টেলি অভিনেত্রীকে হেনস্থা অ্য়াপক্য়াবে! গাড়ি থেকে জোর করে নামানো হল স্বস্তিকাকে

সার্ভিস চার্জ থেকেই দেওয়া হত কর্মীদের বেতন, হল মেরামত করা, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার খরচও উঠত এখান থেকেই। কিন্তু বর্তমানে সেই দিক থেকে কোনও সমাধান সূত্র না মেলায় বেজায় বিপাকে তারা। মোচটের ওপর ৯০০ টি সিঙ্গেল স্ক্রিন সিমেনা হলের মধ্যে চালু রয়েছে মাত্র ২৫০টি, তারই মধ্যে বেশ কয়েকটি ধুঁকছে। ফলেই তরিঘড়ি নয়া ব্যাবস্থা না নিলে সমস্যার অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হবে সিনেমা হল।

এদিন সাংবাদিক সন্মেলনে উপস্থিত ছিলেন হল কর্তৃপক্ষ, আর্টিস্ট ফোরাম, ফেডারেশনের সকলেই। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে এই আবেদনই তুলে ধরা হল। আগামী ১৮ই জুলাই পর্যন্ত যদি কোনও সমাধান সূত্র না খুঁজে পাওয়া যায়, তবে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হবে সিঙ্গল স্ক্রিনে ছবি দেখানো। বর্তমানে বহাল তবিয়তে চলা মাল্টিপ্লেক্সগুলোর অবস্থাও যে খুব ভালো এমনটাও নয়। ফলেই দর্শকদের ওপর চাপ সৃষ্টি নয়, কেবলই নিজেদের টিকে থাকার জন্যই এই আর্জি।