করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ক্রমশই বাড়ছে। মঙ্গলবার স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুয়ায়ী গত ২৪ ঘণ্টায়  দেশে করোনা দেশেকরোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা আড়াই লক্ষেরও বেশি। দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দেড় কোটি ছাড়িয়ে গেছে। এই পরিস্থিতিতে দিল্লি হাইকোর্ট টিকা নষ্ট হচ্ছে বলে রীতিমত উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। দিল্লি হাইকোর্ট রীতিমত উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছে, 'আর কিছু দিনের মধ্যেই দেশে সকল নাগরিককে ভ্যাকসিন দেওয়ার কাজ শুরু হবে। এই পরিস্থিতিতে কেন আমাদের দেশে টিকা নষ্ট হচ্ছে? টিকা নষ্ট কি কোনও ভাবেই রোধ করা যায় না?' এই প্রশ্ন তুলেছে আদালত। একই সঙ্গে দ্রুততার সঙ্গে সকল নাগিরককে টিকা দেওয়ার কথাও বলা হয়েছে। একই সঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের তরফ থেকে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের এই মহামারির কোনও ধর্ম বর্ণ, শ্রেনি কিছুই দেখছে না। সকলকেই আক্রান্ত করছে। এই পরিস্থিতিতে যাঁদের যাঁদের টিকা প্রয়োজন রয়েছে তাদের দ্রুতার সঙ্গে টিকা দান করতে হবে বলেও জানিয়েছে দিল্লি আদালত। 

বায়ু বাহিত করোনাভাইরাসে দ্বিতীয় ঢেউ থেকে বাঁচতে কী জাতীয় মাস্ক পরবেন, টিপস দিলেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ...


দিল্লি হাইকোর্টের বিপিন সিংঘী ও রেখা পল্লির বেঞ্চ সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনের কথা তুলে ধরে বলেছে, ১০ কোটি টাকার ভ্যাকসিনের মধ্যে ৪৪ লক্ষ টাকার ভ্যাকসিন নষ্ট হয়েছে। তারপরই তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন দুই বিচার পরি। কাচারকরা টিকা দেওয়া যেতে পারে এমন মানুষদের তালিকা সমন্বিত একটি মোবাইল অ্যাপলিকেশন তৈরির পরামর্শই দিয়েছিলেন।তাঁরা বলেছেন টিকা নিতে ইচ্ছুকদেরেই আগে টিকা দিতে হবে। যে টিকা মানুষের প্রাণ বাঁচাতে পারে তা কী করে নষ্ট হচ্ছে, এই প্রশ্নও তুলেছেন তাঁরা। 

বাংলায় আসছে বিজেপি, এই রাজ্যে শূন্য থেকে কীভাবে পথ চলা শুরু তাই জানিয়েছেন অমিত শাহ ...

আদালত বলএছেন, এই বিষয় নিয়ে যদি ১০ দিন অপেক্ষা করা হয় তাহলে এই সমস্যাটি অব্যাহত থাকবে। আর মহামারির কারণে মূল্যবান ও তাজা প্রাণ প্রতিদিনই চলে যাচ্ছে। মহামারি কোনও বৈষম্য মূলক আচরণ করে না। তাই যাদের টিকার প্রয়োজন রয়েছে তাদের টিকা দিতে হবে। প্রত্যোককে টিকা প্রদানের প্রয়োজন রয়েছে বলেও জানান হয়েছে। একই সঙ্গে আদালতের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে টিকা অপচয় রুখতে আগে এলে আগে পাবে এই পদ্ধতিতেও টিকাকর্মসূচি চালান যেতে পারে। 

করোনাভাইরাসের সংক্রণ বাড়ছে, কুম্ভ মেলাকে প্রতীকী রাখার আর্জি প্রধানমন্ত্রী মোদীর ...
চলতি মাসের গোড়ার দিকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে করোনাভাইরাস নিয়ে বৈঠকেও নরেন্দ্র মোদী টিকা অপচয়ের প্রসঙ্গ তুলেছিলেন। তিনি বলেছিলেন করোনাভাইরাসের সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য টিকা একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদন। আর সেই কারণেই যেভাবেই হোক এটির অপচয় রুখতে হবে। এদিনও সেই একই কথা বলল সুপ্রিম কোর্ট। আদালতের পক্ষ থেকে আরও বলা হয়েছে দ্রুততার সঙ্গে বেশি মানুষকে টিকা দিতে হবে।