বৃহস্পতিবারই, রুশ করোনা টিকা স্পুটনিক ভি-কে ভারতে ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে ডিসিজিআই। ভারতে অনুমোদন পাওয়া এই তৃতীয় টিকাটির প্রতিটি ডোজের দাম পড়বে ৯৯৫.৪০ টাকা। শুক্রবার এমনটাই জানালো এই টিকার ভারতীয় অংশিদার ডা. রেড্ডিজ ল্যাবরেটরিজ। রাশিয়া থেকে আমদানি করা স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিনের প্রতি ডোজের দামের সঙ্গে অবশ্য পাঁচ শতাংশ জিএসটি ধরা আছে। ভারতের মাটিতে যে ডোজগুলি তৈরি হবে, তাতে এই জিএসটি লাগবে না। তাই সেগুলির দাম অপেক্ষাকৃতভাবে কম পড়বে।

বর্তমানে ভারতে যে দুটি কোভিড ভ্যাকসিনের ডোজ দেওয়া হচ্ছে, সেই অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা'র কোভিশিল্ড, এবং এবং ভারত বায়োটেকের কোভাক্সিনের থেকে স্পুটনিক ভি-এর কার্যকারিতা অনেকটাই বেশি। কোভিশিল্ডের কার্যকারিতা মাত্র ৭০ শতাংশ, অন্যদিকে ভারতের তৈরি কোভ্যাক্সিনের কার্যকারিতা ৮১ শতাংশ। সেই জায়গায় স্পুটনিক ভি-এর কার্যকারিতা ৯১.৬ শতাংশ। বস্তুত, কার্যকারিতার দিক থেকে বিশ্বে মার্কিন সংস্থা ফাইজার এবং মডার্নার তৈরি করোনা ভ্যাকসিনগুলির পরেই রয়েছে স্পুটনিক ভি

দুই-ডোজ বিশিষ্ট, রাশিয়ার গ্যামালিয়া ইনস্টিটিউটে তৈরি এই টিকাকে বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই বিশ্বব্যাপী ২০ লক্ষেরও বেশি মানুষ এই টিকার অন্তত একটি ডোজ পেয়েছেন। আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে এই টিকার দাম ডোজ প্রতি ১০ ডলারেরও কম।

স্পুটনিক ভি টিকার প্রথম চালানটটি গত ১ মে তারিখে রাশিয়া থেকে ভারতের হায়দরাবাদ শহরে এসে পৌঁছেছিল। চলতি মাসেই আরও একটি স্পুটনিক ভি ভাইরাসের চালান এসে পৌঁছনোর কথা ভারতে। আর আগামী কয়েক মাসের মধ্যে স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিনের উত্পাদন শুরু হয়ে যাবে ডাক্তার রেড্ডিজ ল্যাবরেরিজ-এই।