কোভিড আক্রান্তদের চিকিৎসায় অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে রাজ্যের হাসপাতালগুলিতে তৈরি করা হবে প্ল্যান্ট। বৃহস্পতিবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে এই ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসায় ইন্টার্ন চিকিৎসক এবং নার্সদের কাজে লাগানো হবে বলে বার্তা মমতার।

আরও পড়ুন, শুধু পশ্চিমবঙ্গেই কোভিডে একদিনে ১০০-র বেশি মৃত্যু, সংক্রমণে শীর্ষে উত্তর ২৪ পরগণা  

 


প্রসঙ্গত, দিল্লি সহ সারাদেশের কম-বেশি সকল রাজ্যে অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা দিয়েছে বা দেখা যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। কোভিডের প্রথম ঢেউয়ে মর্মান্তিক অভিজ্ঞতা হলেও কখনও অক্সিজেন নিয়ে যে এমন আকাল পড়বে, তা স্বপ্নেও কেউ ভাবেননি। এদিকে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কার মাঝেই তৃতীয় ঢেউয়ের ভবিষ্যতবাণী করা হয়েছে। তাই আগে থেকে সতর্ক থাকতে বলা হচ্ছে। তবে এই মুহূর্তে অক্সিজেন ঘাটতি যে প্রকটভাবে দেশের পাশাপাশি রাজ্যেও দেখা দিতে পারে, সেজন্য আগাম কোভিড আক্রান্তদের চিকিৎসায় অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে রাজ্যের হাসপাতালগুলিতে তৈরি করা হবে প্ল্যান্ট।

 

আরও পড়ুন, বিধানসভায় শপথ নিলেন নবনির্বাচিত বিধায়করা, আজ রয়েছেন রাজ-জুন মালিয়া সহ ১২ তারকা 

 

 


  বৃহস্পতিবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। তিনি এদিন বলেছেন, রাজ্য়ের ১০৫ টি সরকারি হাসপাতালে বসছে অক্সিজেন প্ল্যান্ট। জেলা, মহাকুমা, মেডিক্যাল কলেজ এবং সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে প্ল্য়ান্ট বসানো হবে। তাঁরা নিজেরাই করবে। জেলা মেডিক্যাল কলেজগুলিকেও এই স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয়ভাবে করতে গেলে সময় লাগতে পারে। যাতে সময় নষ্ট না হয়, সেজন্য এই সিদ্ধান্ত। বাতাস থেকে অক্সিজেন তৈরি করবে এই প্ল্যান্ট। ডায়মন্ড হারবার এবং কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ইতিমধ্যেই বসে গিয়েছে', বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।