ভারতের করোনাভাইরাসের স্ট্রেইনকে উদ্বেগজনক হিসেবে চিহ্নিত করল বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা। করোনাভাইরাসের ভারতীয় স্ট্রেই বিশ্বের কাছে উদ্বেগের বলে দাবি করা হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কোভিড ১৯এর প্রযুক্তিবিভাগের প্রধান  ডক্টর মারিয়া ভ্যান কেরখোভ সোমবার বলেছেন ভারতেই প্রথম সনাক্ত করা গেছে করোনাভাইরাসের পরিবর্তিত রূপ বি ১.৬১৭। 

বিশ্ব  স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে  ভারতসহ বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে করোনাভাইরাসের এই স্ট্রেইনটি লক্ষ্য করা গেছে। তবে পরিবর্তিত এই জিন নিয়ে এখনও গবেষণা চলছে। এটির সংক্রমণের মাত্রাসহ একাধিক দিকগুলিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ইতিমধ্যেই করোনার নতুন এই রূপকে বিশ্বব্যাপী উদ্বেগের কারণ হিসবে নথিভুক্ত করেছে। ভাইরাসটির বর্তমান বিবর্তন নিয়ে গবেষণা শুরু করে হু। কিছু তথ্য হাতে এসেছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। তবে আরও তথ্যের প্রয়োজন বলেও দাবি করা হয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে।করোনার নতুন এই রূপ নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এপি টিমের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে কাজ করছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। দ্রুততার সঙ্গে কোভিডের পরিবর্তিত রূপ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহেরও চেষ্টা করা হচ্ছে বলে  জানিয়েছেন  ডক্টর মারিয়া ভ্যান কেরখোভ। 

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে এখনও পর্যন্ত যা তথ্য পাওয়া গেছে তাতে স্পষ্ট করোনার নতুন এই রূপ দ্রুততার সঙ্গে সংক্রমণ ছড়াতে সক্ষম। জিনটি আগের তুলনায় শক্তিশালী বলেও অনুমান করা হচ্ছে। তাই এটির বিস্তার রোধ ও মৃত্যুর হার কমাতে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করার জরুরি। তাই সংক্রমণ রুখতে শারীরিক দূরত্ব বিধি বজায়র রাখার ওপরেই জোর দিয়েছে সংস্থা। একই সঙ্গে হাত ধোয়া ও মাস্কের ব্যবহার বাধ্যতামূলক করতেও আবেদন জানিয়েছে। সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচতে ভিড় এড়িয়ে চলারও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।