বিশ্বকাপের মাঝামাঝি একের পর এক ম্য়াচ ভেস্তে যাচ্ছিল বৃষ্টিতে। ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নিউজিল্যান্ড - প্রায় সব দলকেই কমবেশি বৃষ্টি-অসুরের কবলে পড়তে হয়েছিল। তারপর বেশ কয়েকটা দিন রেহাই দিয়ে বেশ কিছু আকর্ষণীয় ম্য়াচ হতে দিয়েছিল বৃষ্টি। কিন্তু নকআউট পর্বের শুরুতেই ফের বৃষ্টির ভ্রুকুটি দেখা দিয়েছে। ভারত-নিউজিল্য়ান্ড সেমিফাইনাল যদি শেষ পর্যন্ত বৃষ্টিতে ভেস্তে যায়, সেইক্ষেত্রে কিন্তু ভারতের চিন্তার কিছু থাকবে না।

শ্রীলঙ্কা ম্য়াচে হেডিংলের আকাশে কাশ্মীরি স্লোগান নিয়ে বিমান ওড়ার পর মঙ্গলবার নিরাপত্তার কারণে ম্যাঞ্চেস্টারের আকাশে বিমান ওড়া বন্ধ করতে পারলেও মেঘ জমা বন্ধ করতে পারেনি আইসিসি। লন্ডনের আবহাওয়া দফতর খুব একটা ভাল পূর্বাভাস দেয়নি। তারা জানিয়েছে স্থানীয় সময় ১০টা নাগাদ অর্থাৎ ম্য়াচ শুরুর ঠিক মুখে হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। সেই বৃষ্টি চলতে পারে স্থানীয় সময় দুপুর ১টা পর্যন্ত।

একটাই বাঁচোয়া, মকআউটের তিনটি ম্য়াচের জন্য় একটি করে দিন অতিরিক্ত হাতে রাখা হয়েছে। অর্থাৎ কোনও কারণে মঙ্গলবার ম্যাচ শেষ না করা গেলে, তা বুধবার করা যাবে। তবে, বুধবারও কিন্তু বৃষ্টির সম্বাবনা রয়েছে। দুইদিনেও যদি ম্যাচ শেষ না করা যায়? যদি একেবারেই ভেস্তে যায়, তাহলে কি হবে?

আরও পড়ুন - ভারত বনাম নিউজিল্যান্ড - চার প্রধান তারকা সংঘাত, যা প্রভাব ফেলবেই ম্যাচের ফলাফলে

আরও পড়ুন - মেঘলা পরিবেশে বোল্ট হতে পারেন ভয়ঙ্কর সুন্দর! ভারতকে ভাবাচ্ছে মিডল অর্ডারই

দুই ক্রিকেটারকে দলে চাইই চাই! সেমির আগে বিরাটকে সচিনের পরামর্শ

আইসিসির বিশ্বকাপ ২০১৯-এর নিয়ম বলছে, সেই ক্ষেত্রে গ্রুপ পর্বের দুই দলের পয়েন্ট বিচার করা হবে। ভারত ১৫ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপে সবার আগে শেষ করেছে। আর কিউইরা ১১ পয়েন্ট নিয়ে ছিল ৪ নম্বরে। অর্থাৎ, ম্য়াচ যদি বৃষ্টি বা অন্য কোনও কারণে ভেস্তে যায়, সেই ক্ষেত্রেও ফাইনালে ওঠা আটকাবে না বিরাট কোহলিদের।  

তবে মেঘলা আবহাওয়া কিন্তু ভারতের পক্ষে বিপদের কারণ হতে পারে। আকাশে মেঘ থাকা মানেই ইংল্যান্ডের পিচে বল নড়াচড়া করা শুরু করবে। আর বল নড়ে যে সব ভারতীয় ব্যাটসম্যানরাই অসুবিধায় পড়েন, তা সকলেরই জানা। চলতি বছরের শুরুতে নিউজিল্যান্ড সফরে এইরকম অবস্থায় বোল্ট ৬ উইকেট নিয়ে ভারতকে ৯২ রানে অলআউট করে দিয়েছিলেন। বিশ্বকাপের আগে গা-ঘামানো ম্য়াচেও মেঘলা আবহাওয়ায় ছড়ি ঘুরিয়েছিলেন বোল্ট।