Asianet News BanglaAsianet News Bangla

২০১৪ থেকে ঝুলিতে নেই কোনও আইসিসি ট্রফি, তবু কী করে ক্রিকেটের সেরা শক্তি ভারত

  • আরও একটা আইসিসি টুর্নামেন্টের ফাইনালে হার ভারতের
  • ২০১৪ থেকে মোট ৪ টি আইসিসি টুর্নামেন্টের ফাইনালে হেরেছে ভারত
  • সমান সংখ্যক বার সেমি-ফাইনাল থেকেও বিদায় নিয়েছে ভারত
  • শেষ বার ২০১৩ তে আইসিসি টুর্নামেন্ট জিতেছিল ভারত
     
India's horror run in Knockouts of ICC tournaments since 2014 continues in ICC Women's T-20 World cup 2020
Author
Kolkata, First Published Mar 9, 2020, 6:20 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

আরও একটা আইসিসি টুর্নামেন্ট, আরও একবার স্বপ্নভঙ্গ। ২০২০ মহিলা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে খালি হাতে ফেরত হলো ভারতকে। এই নিয়ে টানা ৮ টি টুর্নামেন্টের নক-আউট পর্ব থেকে বিদায় নিতে হলো ভারতকে। এর মধ্যে ৪ বার ফাইনাল, ৪ বার সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয়েছে তাদের। শেষবার ভারতের ঝুলিতে আইসিসি ট্রফি ঢুকেছিল ২০১৩ তে। তারপর থেকে প্রতিটি টুর্নামেন্ট হতাশাই সঙ্গী হয়েছে ভারতের। দেখা নেওয়া যাক চিত্রগুলি-

২০১৪
মহেন্দ্র সিংহ ধোনির নেতৃত্বে দুর্দান্ত খেলে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে পৌঁছেছিল ভারতীয় দল। অসাধারণ পারফরম্যান্স করেছিল গোটা দল। ধারাবাহিক ভাবে রান করছিলেন বিরাট কোহলি। সেমিতে অসাধারণ ক্রিকেট খেলে সাউথ আফ্রিকাকে হারিয়ে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে ফাইনালে মুখোমুখি হয় ভারত। কিন্তু মালিঙ্গার ওয়াইড ইয়র্করের সামনে অসহায় দেখায় যুবি-ধোনি দের। একা কুম্ভ হয়ে লড়েন বিরাট কোহলি। কিন্তু সাঙ্গাকারা, থিরিমান্নের ব্যাটে ভর করে ম্যাচ জেতে শ্রীলঙ্কা।

২০১৫
অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে একদিনের ক্রিকেটের বিশ্বকাপে মহেন্দ্র সিংহ ধোনির নেতৃত্বে সেমিফাইনালে পৌঁছয় ভারত। সেমিফাইনালে তাদের সামনে পরে আয়োজক অস্ট্রেলিয়া। স্টিভ স্মিথের সেঞ্চুরির দৌলতে ৩২৮ রান তোলে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো করলেও পর পর ধাওয়ান, রোহিত এবং কোহলির উইকেট খুইয়ে ম্যাচ থেকে ধীরে ধীরে ম্যাচ থেকে হারিয়ে যায় ভারত। 

২০১৬
এই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও ভারত অসাধারণ শুরু করেছিল। সেমিফাইনাল অবধি এবারেও পৌঁছয় ভারত। সেমিফাইনালে তাদের সামনে পরে এই ফরম্যাটের ত্রাস ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথমে ব্যাট করে বিরাট কোহলির অসাধারণ ব্যাটিংয়ের সৌজন্যে বোর্ডে বড় রান তোলে ভারত। কিন্তু ব্যাটিং করতে নেমে ভারতীয় বোলিংকে নিয়ে ছেলেখেলা করে নির্ধারিত কুড়ি ওভারের অনেক আগেই প্রয়োজনীয় রান তুলে দেয়। অসাধারণ ব্যাটিং করেন লেন্ডল সিমন্স।

২০১৭
এই আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেই প্রথমবারের জন্য কোনো আইসিসি টুর্নামেন্টে ভারতকে নেতৃত্ব দেন বিরাট কোহলি। বিরাট কোহলির নেতৃত্বে অসাধারণ ক্রিকেট খেলে টুর্নামেন্টের ফাইনালে পৌঁছয় ভারত। কিন্তু ফাইনালে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের কাছে হারতে হয় তাদের। হার্দিক পান্ডিয়া একা কিছুটা লড়াই করলেও শেষ পর্যন্ত তা যথেষ্ট ছিল না।

২০১৭
এই বছর আয়োজিত হয় মহিলা বিশ্বকাপ। মিতালি রাজের নেতৃত্বে অসাধারণ ক্রিকেট খেলে ভারত। বলতে গেলে এইবারই ট্রফির সবচেয়ে কাছে পৌঁছয় ভারত। ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ ছিল ইংল্যান্ড। তাদের করা ২২৯ রান তাড়া করতে নেমে একসময় ১৯০ তে ৩ উইকেট ছিল ভারত। তারপর আশ্চর্যজনক ভাবে ২৮ রানে বাকি ৭ উইকেট খুইয়ে ম্যাচ হেরে যায় ভারত। ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেন পুনম রাউত। তিনি ৮৬ রান করে ফিরে যাওয়ার পরেই ধসে যায় ভারত। 

২০১৮
এই বছর আয়োজিত হয় মহিলা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এবারেও ভারতের স্বপ্নভঙ্গ করে ইংল্যান্ড। টুর্নামেন্ট জুড়ে অসাধারণ পারফরম্যান্স করে ভারত। কিন্তু সেমিতে ইংল্যান্ডের সঙ্গে খেলতে গিয়ে একসময় ৮৯ তে ২ থেকে ১১২ তে অল-আউট হয়ে যায় ভারত। ১৭ বল বাকি থাকতে প্রয়োজনীয় রান তুলে নেয় ভারত।

২০১৯
শেষ বছর বিরাট কোহলির অধিনায়ত্বে একদিনের ক্রিকেটের বিশ্বকাপ খেলতে নামে ভারত। গোটা টুর্নামেন্টে মাত্র একটি ম্যাচ হেরেছিল ভারত। সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের সামনে পড়ে ভারত। সবুজ পিচে নিউজিল্যান্ড প্রথমে ব্যাট করে  ২৪৩ রান তোলে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে নিউজিল্যান্ডের পেস আক্রমনের সামনে ধসে যায় ভারতীয় টপ অর্ডার। শেষ দিকে জাদেজার অসাধারণ ব্যাটিংয়ের দৌলতে ম্যাচে ফিরেছিল ভারত, কিন্তু জয় অধিরাই থেকে যায়।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios