আপনি আপনার সন্তানকে সুন্দর ঘর, হাইটেক কম্পিউটার, বই ভর্তি আলমারি প্রায় সব সুবিধাই  দিয়েছেন। কিন্তু কোথাও একটা ফাঁকা রয়ে গিয়েছে বলে মনে হচ্ছে, তাহলে বাস্তুতন্ত্রের খুব সামান্য কিছু নিয়ম মেনে চলতে পারেন। রইল তেমনই কিছু টিপস-

১। আপনার সন্তানের বিছানা  ঘরের পূর্ব-পশ্চিম দিক করে রাখুন। ছাত্রাবস্থায় শোওয়ার সময় পূর্ব দিক এবং কর্ম জীবনে দক্ষিণ দিকে মাথা দিয়ে ঘুমানো সবচেয়ে ভালো। 

২। বাড়ির উত্তর-পূর্ব, পূর্ব অথবা উত্তর-পশ্চিম দিক বাচ্চার ঘরের জন্য সবথেকে আদর্শ। দক্ষিণ-পূর্ব দিকেও সেটা হতে  পারে, তবে কখনোই  পশ্চিম দিকে যেন আপনার সন্তানের ঘর না হয়। 

৩।অনেক সময়ই এটা হয়, আপনার সন্তান প্রচুর পড়ছে কিন্তু সেভাবে মনে রাখতে পারছেনা। আপনি পড়ার টেবিল এমন দিকে রাখুন যাতে পড়তে বসার সময় তার মুখ পূর্ব দিক করে থাকে। আর পড়ার টেবিলের পাশেই বইয়ের আলমারি রাখুন। 

৪। আপনার সন্তানের  ঘরের রং হালকা হওয়াই ভালো ।  নীল, গোলাপী, সবুজ, কমলা যেই রঙই হোক তাতে যেন সাদার ভাগটা বেশি থাকে । এই সব রঙের একটা পজিটিভ এফেক্ট থাকে, এর ফলে  পড়াশোনায় মনোযোগ বাড়ে।

৫। আর যদি  সেই ঘরটি  বাড়ির উত্তর-পূর্ব দিকে হয়, তাহলে বেগুনি রঙের পর্দা লাগান। অন্য দিকে হলে হালকা  সবুজ বা  নীল রঙের পর্দা দিতে পারেন। কারণ এই সব রঙ চড়া আলো শুষে নেয়। 

৬। সন্তানের ঘরে দেওয়াল ঘড়িটা অবশ্যই উত্তর দিকে লাগান। ঘরের দেওয়ালে যেনও কোনওভাবেই যুদ্ধ, কিংবা কোনও মন খারাপ করে দেওয়া ছবি টানানো না থাকে। অন্য যেকোনও ছবি আপনি ঘরের দক্ষিণ দেওয়ালে টানাতে পারেন।
 
৭। যদি সম্ভব হয় আপনার সন্তানের ঘরে যত সম্ভব ইলেকট্রনিক গ্যাজেট কমিয়ে ফেলুন।