Asianet News BanglaAsianet News Bangla

'ভারতীয় ফুটবলকে ফিফার ব্যান দুর্ভাগ্যজনক', ফেডারেশনকে কাঠড়ায় তুললেন বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য ও মিহির বোস

ফিফার (FIFA) ভারতীয় ফুটবলকে (Indian football) নির্বাসন নিয়ে আইএসএফের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন প্রাক্তন ভারতীয় ফুটবলার বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য (Biswajit Bhattacharya) ও মিহির বোস (Mihir Bose)। এই ব্যান ভারতী ফুটবলের  দুর্ভাগ্যজনক  অধ্যায় বলে আখ্যা দেন তারা।
 

Former Indian footballers Biswajit Bhattacharya and Mihir Bose question AIFF s role on FIFA ban Indian football spb
Author
First Published Aug 19, 2022, 5:18 PM IST

তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপের কারণে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে ভারতকে নির্বাসিত করেছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা ফিফা। গত ১৬ অগাস্ট ভারতীয় ফুটবলে নেম এসেছিল ঘন কালো অন্ধকার। ফিফা তাদের বিবৃতিতে বলে, 'এখন এআইএফএফ-এর ক্ষমতায় রয়েছে কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্স। এর বদলে যে দিন থেকে নির্বাচনের মাধ্যমে তৈরি হওয়া কমিটি এআইএফএফ-এর দৈনন্দিন কাজকর্ম দেখতে শুরু করবে, সে দিন থেকে এই নির্বাসনের শাস্তি উঠে যাবে।' এই নির্বাসনের ফলে যেমন একদিকে কোনও আন্তর্জাতিক ফুটবল ম্যাচ খেলতে পারবে না ভারতীয় ফুটবল দল। একইসঙ্গে নির্বাসন না উঠলে আগামি অক্টোবরে ভারতের মাটিতে অনুর্ধ্ব ১৭ মহিলা বিশ্বকাপের আয়োজন সম্ভব নয়। বিদেশী ফুটবলার সই করাতে পারবে না ক্লাবগুলি। এবার ফিফার ভারতীয় ফুটবলকে নির্বাসন নিয়ে আইএইএফের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন প্রাক্তন ভারতীয় ফুটবলার বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য ও মিহির বোস।

শুক্রবার অশোকনগরে চারের পল্লী সার্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটির তরফে দুর্গাপুজোর খুটি পুজোর আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত হয়েছিলেন প্রাক্তন ভারতীয় ফুটবলার বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য ও মিহির বোস।  সেখানে ভারতীয় ফুটবলকে ফিফার ব্যান নিয়ে মিহির বোস বলেন, 'খুব দুর্ভাগ্যজনক  অধ্যায়। ভারতীয় ফুটবলে এমন একটা অন্ধকার নেমে আসবে আমরা কল্পনাও করতে পারেনি। আমরা চাই ফিফা যেন খুব শীঘ্রই যেন এই নির্বাসন তুলে নেয় ও ভারত ফুটবলের মীল স্রোতে ফিরতে পারে।' পাশাপাশি তিনি বলেন,'মহিলা বিশ্বকাপ ফুটবলের আয়োজন করতে না পারলে ফুটবলের ইতিহাসে একটা কলঙ্ক থেকে যাবে। এইআইএফেএফের তো ভুল  আছেই। এই ঘটনা থেকে ভারতীয় ফুটবলের কর্তাদের যাতে শুভ বুদ্ধির উদয় হয় ও আগামি দিনের জন্য শিক্ষা নিতে পারে।'

একই বিষয়ে বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বলেন, এইআইএফএফ কর্তাদের উচিৎ ছিল সঠিক সময়ে সরে যাওয়া ও নতুন জেনারেশনকে দায়িত্ব দেওয়া। তারা সেটা না করার জন্যই এই অবস্থা। সুপ্রিম কোর্ট ও অন্যান্য শুভাকাঙ্খীরা চেষ্টা করছে যাতে দ্রুত নির্বাসন তোলা যায়। আশা করি আমাদের মহিলা ফুটবল বিশ্বকার দেখার সুযোগ হাত ছাড়া না।

প্রসঙ্গত, ফিফার নির্বাসন থেকে ভারতীয় ফুটবলের উপক থেকে তুলতে গেলে দুটি পথ অবলম্বন করতে হবে। এক, এআইএফএফ-কে ফিফার নির্বাসন থেকে মুক্ত হতে হলে, সুপ্রিম কোর্টের গঠন করা কমিটিকে সরতে হবে এবং ক্ষমতায় আসতে হবে এআইএফএফ-এর নতুন এক্সিকিউটিভ কমিটিকে। নতুন এক্সিকিউটিভ কমিটি এআইএফএফ-এর পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ হাতে পেলে, তবেই এই নির্বাসন থেকে মুক্ত হবে ভারতীয় ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা। দুই, এআইএফএফ-এর হাতে দায়িত্ব তুলে দিতে হলে করতে হবে নির্বাচন। অর্থাৎ নির্বাচন হলেই কেটে যাবে সব মেঘ। এই মাসের শেষে নির্বাচন হওয়ার কথা। সেটা হলেই ভারতীয় ফুটবল ফের ফিরতে পারবে স্বমেজাজে। করতে পারবে বিশ্বকাপ আয়োজনও। মোহনবাগানও খেলতে পারবে এএফসি কাপে।

আরও পড়ুনঃপ্রথম ভারতীয় ফুটবলার হিসেবে খেললেন উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে, ইতিহাসের পাতায় মনীষা কল্যাণ

আরও পড়ুনঃকিশোরী বাস্কেট বল প্লেয়ারকে ধর্ষণের চেষ্টা, বাধা দেওয়ায় ফেলে দেওয়া হল স্টেডিয়ামের ছাদ থেকে

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios