দিনের শুরুতে দেখে নিন সেরা দশ হেডলাইনস নিউজ, যাতে দিনভর থাকবে নজর

First Published 9, Feb 2020, 7:53 AM IST

প্রতিমুহূর্তে ঘটে চলেছে নতুন কোনও ঘটনা। সেই সঙ্গে সমানে সামনে আসছে নিত্য-নতুন আপডেট। নতুন করে একটি দিন শুরুর সময় অবশ্যই একটা জিজ্ঞাস্য থাকে যে আজকের সেরা খবর কোনগুলো বা কোন খবরগুলিতে থাকবে নজর। এমনকিছু খবরের তালিকা এখানে দেওয়া হয়েছে যা আজ সারা দিন সকলের নজরে থাকবে। 
 

বিশ্বকাপ ফাইনালে আজ ভারত বনাম বাংলাদেশ-- আজ অনুর্ধ্ব ১৯-এর বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে ভারত ও বাংলাদেশ। প্রতিযোগিতায় আগাগোড়া দুরন্ত ক্রিকেট খেলেছে ভারত। বিশ্বকাপে ভারত অন্যতম ফেভারিট দল। আশা ছিল যে যশস্বী জয়সওয়াল, কার্তিক ত্যাগিদের নিয়ে তৈরি ভারতীয় দল ভালো কিছু করবে। প্রত্যাশামতোই তাই ভারত ফাইনালে। তবে, সকলকে চমকে দিয়েছে বাংলাদেশ। কোয়ার্টার ফাইনাল এবং সেমিফাইনালে শক্তিশালী দুই প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া এবং পাকিস্তানকে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছেছে। বলতে গেলে আজকের এই ফাইনাল নিয়ে রীতিমতো বাগযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছেন ভারতীয় এবং বাংলাদেশের ক্রিকেট সমর্থকরা।

বিশ্বকাপ ফাইনালে আজ ভারত বনাম বাংলাদেশ-- আজ অনুর্ধ্ব ১৯-এর বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে ভারত ও বাংলাদেশ। প্রতিযোগিতায় আগাগোড়া দুরন্ত ক্রিকেট খেলেছে ভারত। বিশ্বকাপে ভারত অন্যতম ফেভারিট দল। আশা ছিল যে যশস্বী জয়সওয়াল, কার্তিক ত্যাগিদের নিয়ে তৈরি ভারতীয় দল ভালো কিছু করবে। প্রত্যাশামতোই তাই ভারত ফাইনালে। তবে, সকলকে চমকে দিয়েছে বাংলাদেশ। কোয়ার্টার ফাইনাল এবং সেমিফাইনালে শক্তিশালী দুই প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া এবং পাকিস্তানকে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছেছে। বলতে গেলে আজকের এই ফাইনাল নিয়ে রীতিমতো বাগযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছেন ভারতীয় এবং বাংলাদেশের ক্রিকেট সমর্থকরা।

সিএএ-র প্রচারে বাধা,মেমারিতে  বিজেপি-তৃণমূলের মিছিল ঘিরে ধুন্ধুমার-- ফের সিএএ-র প্রচারে গিয়ে বাধা পড়ল বিজেপি। অভিযোগ বিজেপি  প্রচারে নামলে বাধা দিয়েছে তৃণমূল। এমনকী সিএএ-র লিফলেট কেড়ে নিয়ে মারধর করা হয়েছে বিজেপির কর্মীদের। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশ বাহিনী নামানো হয়েছে। জানা গেছে, এদিন বিজেপি নেতা ভীষ্মদেব ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে বিজেপি সমর্থকরা সিএএ-র সমর্থনে মিছিল করে। যেখানে বিজেপিকে প্রচার করতে দেবে না বলে পাল্টা মিছিল করে তৃণমূল। খোদ তৃণমূলের মিছিলে নেতৃত্ব দেন মেমারি পৌরসভার চেয়ারম্যান স্বপন বিষয়ী। দুটি মিছিল মেমারি রেলগেটের কাছে এলে ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। শুরু হয়ে সংঘর্ষ। ঘটনাস্থলে যায় মেমারি থানার পুলিশ। পরে‌ পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়।

সিএএ-র প্রচারে বাধা,মেমারিতে বিজেপি-তৃণমূলের মিছিল ঘিরে ধুন্ধুমার-- ফের সিএএ-র প্রচারে গিয়ে বাধা পড়ল বিজেপি। অভিযোগ বিজেপি  প্রচারে নামলে বাধা দিয়েছে তৃণমূল। এমনকী সিএএ-র লিফলেট কেড়ে নিয়ে মারধর করা হয়েছে বিজেপির কর্মীদের। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশ বাহিনী নামানো হয়েছে। জানা গেছে, এদিন বিজেপি নেতা ভীষ্মদেব ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে বিজেপি সমর্থকরা সিএএ-র সমর্থনে মিছিল করে। যেখানে বিজেপিকে প্রচার করতে দেবে না বলে পাল্টা মিছিল করে তৃণমূল। খোদ তৃণমূলের মিছিলে নেতৃত্ব দেন মেমারি পৌরসভার চেয়ারম্যান স্বপন বিষয়ী। দুটি মিছিল মেমারি রেলগেটের কাছে এলে ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। শুরু হয়ে সংঘর্ষ। ঘটনাস্থলে যায় মেমারি থানার পুলিশ। পরে‌ পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়।

তাইল্যান্ড-এর শপিং মলে সেনা অফিসারের হত্যালীলা, নিহত অন্তত ২১---তাইল্যান্ড-এ শপিং মলে বন্দুকবাজের হামলা। যার জেরে প্রাণ হারালেন অন্তত ২১ জন। তবে কোনও সন্ত্রাসবাদী হামলা নয়, এক জুনিয়র সেনা অফিসারই এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে আন্তর্জাতিক কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে দাবি করা হচ্ছে। ওই শপিং মল-এ হামলা চালানোর আগে অভিযুক্ত জুনিয়র আর্মি অফিসার সেনা ছাউনিতে তিনজনকে হত্যা করে। ঘটনায় অন্তত দশজন গুরুতর জখম হয়ে হাসপাতালে ভর্তি বলে জানা গিয়েছে। তবে বেশ কয়েকঘণ্টার চেষ্টা শপিং মল থেকে বন্দুকবাজের হাতে বন্দি হয়ে থাকা সাধারণ মানুষকে বের করে আনতে পেরেছে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। তাইল্যান্ড-এর নাখোন রাটচাসিমা শহরে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। এই শহর কোরাট নামেও জনপ্রিয়। সেখানকার টার্মিনাল টোয়েন্টি ওয়ান নামে একটি জনপ্রিয় মল-এ এই হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার সময় ভিড়ে ঠাসা ছিল গোটা শপিং মল। ফলে হতাহতের সংখ্যাও বেড়েছে।

তাইল্যান্ড-এর শপিং মলে সেনা অফিসারের হত্যালীলা, নিহত অন্তত ২১---তাইল্যান্ড-এ শপিং মলে বন্দুকবাজের হামলা। যার জেরে প্রাণ হারালেন অন্তত ২১ জন। তবে কোনও সন্ত্রাসবাদী হামলা নয়, এক জুনিয়র সেনা অফিসারই এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে আন্তর্জাতিক কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে দাবি করা হচ্ছে। ওই শপিং মল-এ হামলা চালানোর আগে অভিযুক্ত জুনিয়র আর্মি অফিসার সেনা ছাউনিতে তিনজনকে হত্যা করে। ঘটনায় অন্তত দশজন গুরুতর জখম হয়ে হাসপাতালে ভর্তি বলে জানা গিয়েছে। তবে বেশ কয়েকঘণ্টার চেষ্টা শপিং মল থেকে বন্দুকবাজের হাতে বন্দি হয়ে থাকা সাধারণ মানুষকে বের করে আনতে পেরেছে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। তাইল্যান্ড-এর নাখোন রাটচাসিমা শহরে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। এই শহর কোরাট নামেও জনপ্রিয়। সেখানকার টার্মিনাল টোয়েন্টি ওয়ান নামে একটি জনপ্রিয় মল-এ এই হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার সময় ভিড়ে ঠাসা ছিল গোটা শপিং মল। ফলে হতাহতের সংখ্যাও বেড়েছে।

রাজ্যে বিক্ষিপ্তভাবে ইলসেগুড়ি, রবিবার আরও নামছে পারদ---কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে রবিবার মূলত মেঘলা  আকাশ থাকবে। আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী, সোমবার থেকে আকাশ পরিষ্কার হলে রাতের তাপমাত্রা অনেকটাই নিচে নেমে যাবে। কলকাতা তাপমাত্রা ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে ও জেলার তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে নামবে। আগামী পাঁচ দিন শীতের আমেজ বজায় থাকবে কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের । আজ শনিবার কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের খুব সামান্য হালকা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

রাজ্যে বিক্ষিপ্তভাবে ইলসেগুড়ি, রবিবার আরও নামছে পারদ---কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে রবিবার মূলত মেঘলা  আকাশ থাকবে। আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী, সোমবার থেকে আকাশ পরিষ্কার হলে রাতের তাপমাত্রা অনেকটাই নিচে নেমে যাবে। কলকাতা তাপমাত্রা ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে ও জেলার তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে নামবে। আগামী পাঁচ দিন শীতের আমেজ বজায় থাকবে কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের । আজ শনিবার কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের খুব সামান্য হালকা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

দিল্লিতে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফিরছেন 'সন্ত্রাসবাদী' কেজরিওয়াল, বলছে এক্সিট পোল---দিল্লি দখলে মরিয়া বিজেপি নেতারা অরবিন্গ কেজরিওয়ালকে সন্ত্রাসবাদী বলেও আক্রমণ করতে পিছপা হননি। কিন্তু এক্জিট পোল- এর সমীক্ষা যদি মিলে যায়, তাহলে ভোট বাক্সেই বিজেপি-র অপমানের জবাব দিতে চলেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী। কারণ সর্বভারতীয় প্রায় সবকটি সংবাদমাধ্যমের এক্সিট পোল-এই দাবি, বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে দিল্লিতে প্রত্যাবর্তন করতে চলেছে আপ সরকার। শনিবারই দিল্লির ৭০টি বিধানসভা আসনের জন্য নির্বাচন হয়েছে। বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত ভোটগ্রহণের ভিত্তিতে এক্সিট পোল-এ সম্ভাব্য ফলাফল তুলে ধরেছে সংবাদমাধ্যমগুলি। টাইমস নাউ এবং আপিএসওএস- এর করা সমীক্ষা অনুযায়ী দিল্লিতে অন্তত ৪৪টি আসনে জয়ী হতে চলেছে আপ। বিজেপি পেতে পারে ২৬টি আসন। তবে সমীক্ষা অনুযায়ী, দিল্লিতে ধরাশায়ী হতে চলেছে কংগ্রেস।

দিল্লিতে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফিরছেন 'সন্ত্রাসবাদী' কেজরিওয়াল, বলছে এক্সিট পোল---দিল্লি দখলে মরিয়া বিজেপি নেতারা অরবিন্গ কেজরিওয়ালকে সন্ত্রাসবাদী বলেও আক্রমণ করতে পিছপা হননি। কিন্তু এক্জিট পোল- এর সমীক্ষা যদি মিলে যায়, তাহলে ভোট বাক্সেই বিজেপি-র অপমানের জবাব দিতে চলেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী। কারণ সর্বভারতীয় প্রায় সবকটি সংবাদমাধ্যমের এক্সিট পোল-এই দাবি, বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে দিল্লিতে প্রত্যাবর্তন করতে চলেছে আপ সরকার। শনিবারই দিল্লির ৭০টি বিধানসভা আসনের জন্য নির্বাচন হয়েছে। বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত ভোটগ্রহণের ভিত্তিতে এক্সিট পোল-এ সম্ভাব্য ফলাফল তুলে ধরেছে সংবাদমাধ্যমগুলি। টাইমস নাউ এবং আপিএসওএস- এর করা সমীক্ষা অনুযায়ী দিল্লিতে অন্তত ৪৪টি আসনে জয়ী হতে চলেছে আপ। বিজেপি পেতে পারে ২৬টি আসন। তবে সমীক্ষা অনুযায়ী, দিল্লিতে ধরাশায়ী হতে চলেছে কংগ্রেস।

মোদী সরকারকে কি অনাগরিকরা  ভোট দিয়ে এনেছে, প্রশ্ন অপর্ণার---ভোটের কার্ডই যদি নাগরিকত্বের প্রমাণ না হয়, তাহলে কি হাজার হাজার অনাগরিক ভোট দিয়ে এই সরকারকে এনেছে? আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলায় একটি অনুষ্ঠানে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এমনই প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন বিশিষ্ট অভিনেত্রী তথা পরিচালক অপর্ণা সেন। কেন্দ্রীয় সরকারের নয়া নাগরিক আইনের কড়া সমালোচনা করে এই অভিনেত্রী বলেন, নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন যাঁরা তারাই  যখন এই আইন চাইছেন না, তাহলে এর বাস্তবতা কী করে সম্ভব। এই বলেই অবশ্য থেমে থাকেননি 'মিস্টার অ্যান্ড মিসেস আইয়ার'-এর পরিচালক। অপর্ণা সেন আরও বলেন,সিএএ কীভাবে সরকার কার্যকর করতে চাইছে তাও স্পষ্ট নয়। নোট বাতিলের ফলে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা এমনিতেই ভঙ্গুর। এইরকম এক কঠিন পরিস্থিতিতে এইভাবে কোটি কোটি টাকা কীভাবে খরচ করবে, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত এই অভিনেত্রী।

মোদী সরকারকে কি অনাগরিকরা ভোট দিয়ে এনেছে, প্রশ্ন অপর্ণার---ভোটের কার্ডই যদি নাগরিকত্বের প্রমাণ না হয়, তাহলে কি হাজার হাজার অনাগরিক ভোট দিয়ে এই সরকারকে এনেছে? আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলায় একটি অনুষ্ঠানে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এমনই প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন বিশিষ্ট অভিনেত্রী তথা পরিচালক অপর্ণা সেন। কেন্দ্রীয় সরকারের নয়া নাগরিক আইনের কড়া সমালোচনা করে এই অভিনেত্রী বলেন, নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন যাঁরা তারাই  যখন এই আইন চাইছেন না, তাহলে এর বাস্তবতা কী করে সম্ভব। এই বলেই অবশ্য থেমে থাকেননি 'মিস্টার অ্যান্ড মিসেস আইয়ার'-এর পরিচালক। অপর্ণা সেন আরও বলেন,সিএএ কীভাবে সরকার কার্যকর করতে চাইছে তাও স্পষ্ট নয়। নোট বাতিলের ফলে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা এমনিতেই ভঙ্গুর। এইরকম এক কঠিন পরিস্থিতিতে এইভাবে কোটি কোটি টাকা কীভাবে খরচ করবে, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত এই অভিনেত্রী।

ভরসন্ধ্যায় কেঁপে উঠল ঘর, উত্তরবঙ্গে  ভূমিকম্পে থরহরিকম্প মানুষ--- শনিবার ভরসন্ধ্য়ায় কেঁপে উঠল ঘর বাড়ি। মৃদু ভূমিকম্পেই কপালে ভাঁজ পড়ল উত্তরবঙ্গবাসীর। তড়িঘড়ি ঘর ছেড়ে নেমে এলেন তারা। ভূমিকম্পের প্রভাব পড়েছে আলিপুরদুয়ার, শিলিগুড়ি,কোচবিহার,জলপাইগুড়িতে। যদিও ভূমিকম্পে কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। জানা গিয়েছে, রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের তীব্রতা ৫.০। সন্ধে ৬টা ১৭ মিনিটে কম্পন মৃদু কম্পন  অনুভূত হয়েছে উত্তরবঙ্গে। আসলে ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল অসমের বঙাইগাঁও। সেখান থেকেই এই কম্পন ছড়িয়ে পড়েছে। কম্পন সাধারণ মানুষের মধ্য়ে আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি করেছে। অতীতে দেখা গিয়েছে, ভূমিকম্পের কিছু ঘণ্টার মধ্য়ে ফের আফটার শকের মুখোমুখি  হয় আক্রান্ত এলাকা। এক্ষেত্রেও সেরকম কিছুর আশঙ্কায়  ভীত শঙ্কিত পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।

ভরসন্ধ্যায় কেঁপে উঠল ঘর, উত্তরবঙ্গে ভূমিকম্পে থরহরিকম্প মানুষ--- শনিবার ভরসন্ধ্য়ায় কেঁপে উঠল ঘর বাড়ি। মৃদু ভূমিকম্পেই কপালে ভাঁজ পড়ল উত্তরবঙ্গবাসীর। তড়িঘড়ি ঘর ছেড়ে নেমে এলেন তারা। ভূমিকম্পের প্রভাব পড়েছে আলিপুরদুয়ার, শিলিগুড়ি,কোচবিহার,জলপাইগুড়িতে। যদিও ভূমিকম্পে কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। জানা গিয়েছে, রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের তীব্রতা ৫.০। সন্ধে ৬টা ১৭ মিনিটে কম্পন মৃদু কম্পন  অনুভূত হয়েছে উত্তরবঙ্গে। আসলে ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল অসমের বঙাইগাঁও। সেখান থেকেই এই কম্পন ছড়িয়ে পড়েছে। কম্পন সাধারণ মানুষের মধ্য়ে আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি করেছে। অতীতে দেখা গিয়েছে, ভূমিকম্পের কিছু ঘণ্টার মধ্য়ে ফের আফটার শকের মুখোমুখি  হয় আক্রান্ত এলাকা। এক্ষেত্রেও সেরকম কিছুর আশঙ্কায়  ভীত শঙ্কিত পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।

বইমেলায় বিজেপি- পড়ুয়া ধস্তাধস্তি, ধুন্ধুমার কাণ্ডে বন্ধ করতে হলো গেট---কলকাতা বইমেলার ইতিহাসে বেনজির ঘটনা। বইমেলা চত্বরেই নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়ালেন বিজেপি সমর্থকরা। পরে পুলিশের সঙ্গেও একপ্রস্ত ধস্তাধস্তি হয় বিক্ষোভকারী পড়ুয়াদের। প্রায় তিরিশ থেকে চল্লিশজন বিক্ষোভকারীকে আটক করে পুলিশ। ঘটনার জেরে বন্ধ করে দিতে হয় বইমেলার ৭ নম্বর গেট। পুলিশের মারে বেশ কয়েকজন বিক্ষোভকারী আহত হন বলেও অভিযোগ। এ দিন বইমেলা চত্বরে নাগরিকত্ব আইন, এনআরসি এবং এনপিআর- এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন বেশ কিছু পড়ুয়া। তার মধ্যেই বিকেলের দিকে বিজেপি-র মুখপাত্র জনবার্তা-র স্টলে পৌঁছন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক রাহুল সিনহা। তিনি সেখানে পৌঁছতেই স্টল-এর বাইরে বিক্ষোভ শুরু করেন পড়ুয়ারা। কিছুক্ষণের মধ্যেই জনবার্তা-র স্টল থেকে বিজেপি-র কয়েকজন কর্মী বেরিয়ে এসে পড়ুয়াদের সেখান থেকে সরে যেতে বলেন। বচসা থেকে দু' পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়।

বইমেলায় বিজেপি- পড়ুয়া ধস্তাধস্তি, ধুন্ধুমার কাণ্ডে বন্ধ করতে হলো গেট---কলকাতা বইমেলার ইতিহাসে বেনজির ঘটনা। বইমেলা চত্বরেই নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়ালেন বিজেপি সমর্থকরা। পরে পুলিশের সঙ্গেও একপ্রস্ত ধস্তাধস্তি হয় বিক্ষোভকারী পড়ুয়াদের। প্রায় তিরিশ থেকে চল্লিশজন বিক্ষোভকারীকে আটক করে পুলিশ। ঘটনার জেরে বন্ধ করে দিতে হয় বইমেলার ৭ নম্বর গেট। পুলিশের মারে বেশ কয়েকজন বিক্ষোভকারী আহত হন বলেও অভিযোগ। এ দিন বইমেলা চত্বরে নাগরিকত্ব আইন, এনআরসি এবং এনপিআর- এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন বেশ কিছু পড়ুয়া। তার মধ্যেই বিকেলের দিকে বিজেপি-র মুখপাত্র জনবার্তা-র স্টলে পৌঁছন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক রাহুল সিনহা। তিনি সেখানে পৌঁছতেই স্টল-এর বাইরে বিক্ষোভ শুরু করেন পড়ুয়ারা। কিছুক্ষণের মধ্যেই জনবার্তা-র স্টল থেকে বিজেপি-র কয়েকজন কর্মী বেরিয়ে এসে পড়ুয়াদের সেখান থেকে সরে যেতে বলেন। বচসা থেকে দু' পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়।

দিল্লিতে ভোটের দিন চোখের জল ধরে রাখতে পারলেন না লালকৃষ্ণ আডবাণী  শনিবার দিল্লিতে বিধানসভা নির্বাচন। আর সেদিনই কিনা ভারতীয় রাজনীতির লৌহপুরুষ তথা প্রবীণ বিজেপি নেতার চোখের কোণে দেখা গেল জল!১৯৯০ সালে কাশ্মীরি পণ্ডিতদের ঘরছাড়ার ইতিহাসকে নিয়ে ছবি বানিয়েছেন বিধু বিনোদ চোপড়া। ছবির নাম 'শিকারা'। এদিন দিল্লিতে তার স্পেশ্য়াল স্ক্রিনিংয়ের ব্য়বস্থা করা হয়েছিল। সেখানে মেয়েকে নিয়ে ছবিটি দেখতে এসেছিলেন লাককৃষ্ণ আডবাণী। ছবি শেষ হয়ে যাওয়ার পর ভারতীয় রাজনীতির লৌহপুরুষ আর নিজের আবেগ ধরে রাখতে পারেননি। সামলে রাখতে পারেননি চোখের জল। স্ক্রিনিংয়ের শেষে রীতিমতো কেঁদে ফেলতে দেখা গেল আডবাণীকে। তাঁকে সান্তনা দিতে এগিয়ে এলেন পরিচালক স্বয়ং। পরিচালক নিজেই ইনস্টাগ্রামে এই ছবি শেয়ার করেছেন এদিন। ছবিটি কার্যত ভাইরাল হয়ে যায়।

দিল্লিতে ভোটের দিন চোখের জল ধরে রাখতে পারলেন না লালকৃষ্ণ আডবাণী শনিবার দিল্লিতে বিধানসভা নির্বাচন। আর সেদিনই কিনা ভারতীয় রাজনীতির লৌহপুরুষ তথা প্রবীণ বিজেপি নেতার চোখের কোণে দেখা গেল জল!১৯৯০ সালে কাশ্মীরি পণ্ডিতদের ঘরছাড়ার ইতিহাসকে নিয়ে ছবি বানিয়েছেন বিধু বিনোদ চোপড়া। ছবির নাম 'শিকারা'। এদিন দিল্লিতে তার স্পেশ্য়াল স্ক্রিনিংয়ের ব্য়বস্থা করা হয়েছিল। সেখানে মেয়েকে নিয়ে ছবিটি দেখতে এসেছিলেন লাককৃষ্ণ আডবাণী। ছবি শেষ হয়ে যাওয়ার পর ভারতীয় রাজনীতির লৌহপুরুষ আর নিজের আবেগ ধরে রাখতে পারেননি। সামলে রাখতে পারেননি চোখের জল। স্ক্রিনিংয়ের শেষে রীতিমতো কেঁদে ফেলতে দেখা গেল আডবাণীকে। তাঁকে সান্তনা দিতে এগিয়ে এলেন পরিচালক স্বয়ং। পরিচালক নিজেই ইনস্টাগ্রামে এই ছবি শেয়ার করেছেন এদিন। ছবিটি কার্যত ভাইরাল হয়ে যায়।

ফি বছর নষ্ট হচ্ছে বিশ্বের এক তৃতীয়াংশ খাদ্য, রিপোর্টে উঠে এল ভয়ঙ্কর তথ্য---প্রতি বছর বিশ্বে যত খাদ্য উৎপাদন হয়, তার এক তৃতীয়াংশই নষ্ট হয়। চাল, গম, ডাল থেকে শুরু করে শাক-সবজি, ফল, দুধ, মাছ-মাংস- সব মিলিয়ে বছরে ১৩০ কোটি টন নষ্ট হয় প্রতি বছর। এই ভয়ংকর তথ্য উঠে আসছে ফুড অ্যান্ড এগ্রিকালচারাল অর্গানাইজেশন বা ফাও-এর সাম্প্রতিক রিপোর্ট থেকে। অন্যদিকে আরও এক ভয়ংকর তথ্য জানাচ্ছে অক্সফোর্ড বিশ্বিবদ্যালয়ের গবেষক ম্যাক্স রোসার ও হানা রিটশি। তাঁদের সমীক্ষা জানাচ্ছে,  বিশ্বের প্রায় ৮২ কোটি মানুষ অপুষ্টিতে ভোগেন। ৬৯ কোটি লোকের খাদ্য সুরক্ষিত নয়। ১৮০ কোটি মানুষের খাদ্য সুরক্ষা রয়েছে মাঝারি স্তরে। বলা যায় তারাও প্রয়োজনীয় খাদ্য পান না। খাদ্য নষ্টের তালিকায় রয়েছে উন্নত, উন্নয়নশীল দেশগুলি। প্রতি বছর উন্নত দেশে খাদ্য নষ্ট হচ্ছে ৬৭ কোটি টন ও উন্নয়নশীল দেশে ৬৩ কোটি টন। যা অর্থের অঙ্কে ৬৮ হাজার কোটি ডলার এবং ৩১ হাজার কোটি ডলার।

ফি বছর নষ্ট হচ্ছে বিশ্বের এক তৃতীয়াংশ খাদ্য, রিপোর্টে উঠে এল ভয়ঙ্কর তথ্য---প্রতি বছর বিশ্বে যত খাদ্য উৎপাদন হয়, তার এক তৃতীয়াংশই নষ্ট হয়। চাল, গম, ডাল থেকে শুরু করে শাক-সবজি, ফল, দুধ, মাছ-মাংস- সব মিলিয়ে বছরে ১৩০ কোটি টন নষ্ট হয় প্রতি বছর। এই ভয়ংকর তথ্য উঠে আসছে ফুড অ্যান্ড এগ্রিকালচারাল অর্গানাইজেশন বা ফাও-এর সাম্প্রতিক রিপোর্ট থেকে। অন্যদিকে আরও এক ভয়ংকর তথ্য জানাচ্ছে অক্সফোর্ড বিশ্বিবদ্যালয়ের গবেষক ম্যাক্স রোসার ও হানা রিটশি। তাঁদের সমীক্ষা জানাচ্ছে,  বিশ্বের প্রায় ৮২ কোটি মানুষ অপুষ্টিতে ভোগেন। ৬৯ কোটি লোকের খাদ্য সুরক্ষিত নয়। ১৮০ কোটি মানুষের খাদ্য সুরক্ষা রয়েছে মাঝারি স্তরে। বলা যায় তারাও প্রয়োজনীয় খাদ্য পান না। খাদ্য নষ্টের তালিকায় রয়েছে উন্নত, উন্নয়নশীল দেশগুলি। প্রতি বছর উন্নত দেশে খাদ্য নষ্ট হচ্ছে ৬৭ কোটি টন ও উন্নয়নশীল দেশে ৬৩ কোটি টন। যা অর্থের অঙ্কে ৬৮ হাজার কোটি ডলার এবং ৩১ হাজার কোটি ডলার।

loader